default-image

পশ্চিমবঙ্গের সুপরিচিত সংবাদপত্র আনন্দবাজার পত্রিকার সম্পাদক পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন অভীক কুমার সরকার। শুধু আনন্দবাজারই নয়, এই গোষ্ঠী থেকে প্রকাশিত অপর একটি বাংলা দৈনিক এবেলা ও ইংরেজি দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ-এর সম্পাদক পদ থেকেও সরে গেলেন তিনি।
গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে এই দুই বাংলা দৈনিকের সম্পাদক হলেন অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়। দ্য টেলিগ্রাফ-এর সম্পাদকের দায়িত্ব নিলেন আর রাজাগোপাল। দুজনেই এই পত্রিকার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে যুক্ত রয়েছেন।
সম্পাদকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিলেও অভীক সরকার এবিপি গোষ্ঠীর ‘এডিটর ইমেরিটাস’ থাকছেন। তা ছাড়া তিনি হলেন এই সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান। গত বুধবার পত্রিকা গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে কর্মীদের আনুষ্ঠানিকভাবে এই পালাবদলের খবর জানানো হয়।
অভীক সরকার আনন্দবাজার পত্রিকার সম্পাদকের দায়িত্ব নেন ১৯৮৩ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি। সেদিন সন্ধ্যায় কলকাতা বইমেলার এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার সময় তত্কালীন সম্পাদক এবং অভীক সরকারের বাবা অশোক কুমার সরকার অসুস্থ হয়ে মারা যান। সেই দিন থেকেই পত্রিকার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন অভীক সরকার। সেই অর্থে গত বুধবার তাঁর ৩৩ বছরের সম্পাদনার অবসান ঘটল।
ধারাবাহিকতা অবশ্য স্রেফ ৩৩ বছরের নয়। ১৯২২ সালে আনন্দবাজার পত্রিকার জন্ম। এই পত্রিকা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ভারতের স্বাধীনতাসংগ্রামী সুরেশচন্দ্র মজুমদার। অশোক কুমার সরকারের বাবা প্রফুল্ল সরকার ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক। মাঝে কিছু সময়ের জন্য সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন চপলাকান্ত ভট্টাচার্য। ১৯৫৯ সাল থেকে সম্পাদক হন অশোক কুমার সরকার। অর্থাৎ সেই অর্থে দীর্ঘ ৫৫ বছর পর এই পত্রিকা সম্পাদনার দায়িত্বে এমন একজন এলেন, যিনি সরকার পরিবারের সদস্য নন।
এখন অভীক সরকারের ভাই অরূপ সরকার গত বুধবার থেকে এই গোষ্ঠীর সব প্রকাশনার প্রধান সম্পাদক হলেন। এত দিন ধরে তিনি সংস্থার প্রশাসনিক ও বাণিজ্যিক বিষয়গুলো দেখতেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন