সূত্র বলেছে, আজ অভিযান চালিয়ে আরও কিছু নথি পেয়েছে তাঁরা। এর আগে একটি ডায়েরি পেয়েছিল কেন্দ্রীয় অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। ওই ডায়েরির সূত্র ধরে তদন্ত আগায় ইডি। সে সময় ইডি বলেছিল, তারা বেশ কিছু চুক্তিপত্র পেয়েছে। এগুলোর সঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায় জড়িত।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, আজ বুধবার দুপুরে কলকাতার বেলঘরিয়ার ক্লাব টাউন আবাসনে যান দেশটির কেন্দ্রীয় অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের কর্মকর্তারা। বিকেল নাগাদ ওই অর্থের সন্ধান পাওয়া যায়।

এর আগে গত শুক্রবার টালিগঞ্জের একটি অভিজাত আবাসনে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে নগদ ২১ কোটি টাকা ও গয়না, বিদেশি মুদ্রা উদ্ধার করে ইডি। এরপর জানা যায়, বেলঘরিয়াতেও ফ্ল্যাট রয়েছে পার্থ-ঘনিষ্ঠের। আজ সেখানে অভিযান চালায় ইডি।
শুক্রবার অর্থ উদ্ধারের পর অর্পিতা বলেছিলেন, তিনি, পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ঘনিষ্ঠজনেরা ওই অর্থের খোঁজ জানতেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন