ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর সাবেক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সমীর বানখেড়ে
ফাইল ছবি: এএনআই

বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের সঙ্গে ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) মুম্বাই অঞ্চলের সাবেক প্রধান সমীর বানখেড়ের হোয়াটসঅ্যাপে কিছু বার্তা বিনিময়ের ছবি (স্ক্রিনশট) আদালতে জমা দেওয়া হয়েছিল। তাতে দেখা যায়, ছেলে আরিয়ান খানকে মুক্তি দিতে সমীরের কাছে অনুনয় করছেন শাহরুখ খান। ২০২১ সালে মাদকসংক্রান্ত মামলায় আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার করেছিলেন এনসিবি কর্মকর্তা সমীর বানখেড়ে। আরিয়ানের গ্রেপ্তারের ওই ঘটনা ভারতে তুমুল হইচই ফেলে দেয়।

ভারতের ইংরেজি দৈনিক ফ্রি প্রেস জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, শাহরুখ–বানখেড়ের বার্তা বিনিময়ের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে দেখা যায়, শাখরুখ খান এক বার্তায় বানখেড়েকে লেখেন, ‘সমীর সাহেব, অনুগ্রহ করে আপনার সঙ্গে কি আমি এক মিনিট কথা বলতে পারি? আমি জানি, এটা ঠিক নয়। কিন্তু বাবা হিসেবে একবার যদি আমি আপনার সঙ্গে কথা বলতে পারি! অনুগ্রহ করুন।’

শাহরুখ খান আরও লেখেন, ‘আমার সম্পর্কে আপনি আপনার যে মূল্যায়ন আমাকে জানালেন, তার জন্য আপনাকে কীভাবে ধন্যবাদ জানাব জানি না। আমি এটা নিশ্চিত করব যে সে (আরিয়ান খান) এমন একজন হয়ে উঠবে, যার জন্য আপনি ও আমি গর্বিত হব। এই ঘটনা তার জীবনের বাঁকবদলের মুহূর্ত হিসেবেই প্রমাণিত হবে, আমি কথা দিচ্ছি। এটা হবে ইতিবাচক উপায়ে। আমাদের দেশটাকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য সৎ ও পরিশ্রমী তরুণদের প্রয়োজন।’

বানখেড়েকে পাঠানো বার্তায় শাহরুখ আরও লেখেন, ‘আপনি ও আমি আমাদের কাজ করেছি। এখন পরবর্তী প্রজন্মকে তা অনুসরণ করতে হবে এবং ভবিষ্যতের জন্য তাদের সেভাবে প্রস্তুত করার দায়িত্বও কিন্ত আমাদের হাতে।’ বানখেড়েকে তিনি লেখেন, ‘আপনার উদারতা ও সহযোগিতার জন্য আপনাকে আবারও ধন্যবাদ। শাহরুখের পক্ষ থেকে ভালোবাসা।’

শাহরুখ তাঁর ছেলে আরিয়ান খানের প্রতি দয়াশীল হওয়ার কথা বললে উত্তরে বানখেড়ে তখন বলেন, ‘অবশ্যই, চিন্তা করবেন না।’

আরও পড়ুন

শাহরুখের ছেলেকে গ্রেপ্তারকারী সেই বানখেড়ে মুম্বাইয়ে ৪ ফ্ল্যাটের মালিক

সহযোগিতার জন্য বানখেড়েকে ধন্যবাদ জানিয়ে শাহরুখ আরও লেখেন, ‘এত রাতে এসব বলার জন্য আমি দুঃখিত। আশা করি, আমি আপনাকে বিরক্ত করছি না। কিন্ত আমি জেগে আছি। স্বাভাবিকভাবে একজন বাবার ক্ষেত্রে যা হতো।’ এর জবাবে বানখেড়ে বলেন, ‘শাহরুখ, সে (আরিয়ান) ভালো ছেলে। আশা করি, এই কঠিন সময় দ্রুত শেষ হয়ে যাবে।’

২০২১ সালের ২ অক্টোবর মুম্বাইয়ে একটি প্রমোদতরি থেকে আরিয়ানকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর মাদক আইনে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করে এনসিবি। গ্রেপ্তার হওয়ার পর প্রায় এক মাস কারাগারে ছিলেন আরিয়ান। গত বছর ওই মামলায় তিনি নির্দোষ প্রমাণিত হন।

আরও পড়ুন

শাহরুখের পরিবারের কাছে ২৫ কোটি রুপি ঘুষ চেয়েছিলেন বানখেড়ে: সিবিআই

ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা আরও দাবি করেছে, এনসিবির মুম্বাই শাখার যে দল প্রমোদতরিতে অভিযান চালিয়েছিল, তারা শাহরুখের খানের কাছে ২৫ কোটি রুপির বিনিময়ে মামলা থেকে আরিয়ানের নাম বাদ দেওয়ার পরিকল্পনাও করে।

গত বছর বিশেষ আদালত সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে (সিএটি) বিশেষ তদন্ত দলের দাখিল করা প্রতিবেদনে ৪৪ বছর বয়সী বানখেড়ের বিরুদ্ধে দুটি অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ার কথা জানানো হয়। একটি হলো, মাদকের খোঁজে ওই প্রমোদতরিতে চালানো অভিযানে অনিয়ম এবং ভারতের সেন্ট্রাল সিভিল সার্ভিসের (সিসিএস) বিধিমালা লঙ্ঘন করা।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বানখেড়ে। এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের দারস্থ হয়েছেন তিনি। এ ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের এফআইআর বাতিলে সম্প্রতি বোম্বে হাইকোর্টেরও দারস্থ হন।

আরও পড়ুন

শাহরুখের ছেলেকে গ্রেপ্তার করা মাদক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে সিবিআই