এই কেলেঙ্কারিতে সমালোচনায় পড়া তৃণমূল সরকারের ভাবমূর্তি উদ্ধারে মন্ত্রিসভায় রদবদলের সিদ্ধান্ত নেন মমতা। আজ বিকেলে কলকাতার রাজ্যপালের দপ্তর রাজভবনে নতুন মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। শপথবাক্য পাঠ করান পশ্চিমবঙ্গের ভারপ্রাপ্ত রাজ্যপাল লা. গণেশন। পাঁচজন পূর্ণমন্ত্রী হলেন বাবুল সুপ্রিয়, পার্থ ভৌমিক, প্রদীপ মজুমদার, হাশীষ চক্রবর্তী ও উদয়ন গুহ। আর বর্তমানের প্রতিমন্ত্রী বীরবাহা হাসদাকে স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে আরও তিনজনকে। তাঁরা হলেন বিপ্লব রায় চৌধুরী, সত্যজিৎ বর্মণ ও তাজমুল শেখ।

নতুন করে আটজনকে যুক্ত করায় এবার রাজ্য মন্ত্রিসভা পূর্ণতা পেল। এর আগে দুই মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি ও সাধন পান্ডে মারা গেলেও তাঁদের জায়গায় এত দিন কাউকে বসানো হয়নি। নতুন আটজনকে নিয়ে মন্ত্রিসভার সদস্যসংখ্যা হলো ৪৪। সংবিধান অনুযায়ী এই রাজ্যের ২৯৪ আসনের বিধানসভায় সর্বাধিক ৪৪ জনকে মন্ত্রী করা যেতে পারে। সেই সংখ্যাই এবার পূর্ণ হলো।

তবে পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী ও বলিউড তারকা বাবুল সুপ্রিয় রাজনীতিতে এসে প্রথম যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। আসানসোলের বিজেপি সাংসদ হিসেবে তিনি জয়ী হয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার প্রতিমন্ত্রী হয়েছিলেন। পরে তিনি বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ে যোগ দেন তৃণমূলে। তারপর আসানসোলের সংসদের উপনির্বাচনে তৃণমূল তাঁকে মনোনয়ন না দিয়ে মনোনয়ন দেন বলিউড তারকা শত্রুঘ্ন সিনহাকে। বাবুল মনোনয়ন পান কলকাতার টালিগঞ্জ বিধানসভার উপনির্বাচনে বিধায়ক পদে। এরপর এবার বাবুল সুপ্রিয়কে রাজ্য মন্ত্রিসভায় পূর্ণমন্ত্রী করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন