ভারতের মোট ১১টি রাজ্যে গতকাল তল্লাশি চালানো হয়। গ্রেপ্তার করা হয়েছে সংগঠনের এক শরও বেশি নেতাকে। আসাম এবং পশ্চিমবঙ্গেও একাধিক জায়গায় এনআইএ তল্লাশি চালিয়েছে।

গতকাল রাত পর্যন্ত কেরালা থেকে ২২ এবং কর্নাটক ও মহারাষ্ট্র দুই রাজ্য থেকেই ২০ জন করে পিএফআই নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তামিলনাড়ু থেকে ১০, আসাম থেকে ৯ এবং উত্তর প্রদেশ থেকে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

একাধিক কারণে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে এনআইএ সূত্রে জানানো হয়েছে। এর মধ্যে সন্ত্রাসী কাজকর্মে অর্থ দিয়ে সাহায্য থেকে বিদেশ থেকে টাকা আনা বা পাচার করার অভিযোগ রয়েছে। এখনো পর্যন্ত এটিকে ‘দেশজুড়ে সবচেয়ে বড় অভিযান’ বলে বর্ণনা করেছে এনআইএ।

দুই দিন আগে ২০ তারিখে পিএফআইয়ের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তাদের সম্পূর্ণ বিনা কারণে হেনস্তা করা হচ্ছে। অন্ধ্র প্রদেশ এবং তেলেঙ্গানায় তাদের কিছু নেতা গ্রেপ্তার হওয়ার পরে পিএফআই জানায়, আবদুল খাদের নামের তাদের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যিনি বিভিন্ন ধরনের ‘মার্শাল আর্ট’ অনুশীলন করতেন। গতকাল রাত পর্যন্ত কলকাতায় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন