গোয়ালিওর এলাকার শিব বিহার কলোনির একটি পরিবারের সদস্যরা সম্প্রতি মোবাইলে বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে পাওয়া একটি বার্তা দেখে আঁতকে ওঠেন। সেখানে লেখা আছে এক মাসের বিদ্যুৎ বিল বাবদ তাঁদেরকে ৩ হাজার ৪১৯ কোটি ৫৩ লাখ ২৫ হাজার ২৯৩ রুপি পরিশোধ করতে হবে। এই বিশাল অংকের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের বার্তাটি পাওয়ার পর পরিবারটির দুই সদস্য অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরিবারটি বলছে, প্রিয়াঙ্কা গুপ্ত এবং তাঁর বাবা রাজেন্দ্র গুপ্ত বার্তাটি পাওয়ার পর অস্বস্তি বোধ করার কথা বলেছিলেন। পরে তাঁদের হাসপাতালে নেওয়া হয়।

প্রিয়াঙ্কার গুপ্ত নামের ওই নারীর স্বামী সঞ্জীব কানকানে বার্তা সংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, বিল দেখে তাঁর শ্বশুরের রক্ত চাপও বেড়ে গিয়েছিল।

সঞ্জীব আরও বলেন ২০ জুলাই তারিখে তৈরি হওয়া বিলটি মধ্য প্রদেশের মধ্যক্ষেত্র বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানির পোর্টালের মধ্য দিয়ে সত্যতা যাচাই করা হয়েছিল। সেখানে বিলটি শুদ্ধ বলে উল্লেখ করা হয়।

ভুল বিদ্যুৎ বিল পাঠানোর এ ঘটনাটি নিয়ে দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দেন জ্বালানিমন্ত্রী প্রাদ্যুমান সিং তোমার। তিনি বলেন, জানা গেছে বিদ্যুৎ বিভাগের এক কর্মী ভুল করে মোট খরচ করা বিদ্যুতের পরিমাণের জায়গায় গ্রাহকের নম্বর লিখে ফেলেছিলেন। আর এর ভিত্তিতেই বিলটি তৈরি করা হয়। এখন ওই বাড়ির বিলের পরিমাণ কমিয়ে ১ হাজার ৩০০ রুপি করা হয়েছে।

তোমার আরও ঘোষণা করেন, এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তাকে বরখাস্ত এবং আরেকজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকেও কারণ দর্শাও নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

রাষ্ট্র পরিচালিত বিদ্যুৎ কোম্পানির মহাব্যবস্থাপক নিতিন মাংলিক একে মানুষের ভুল বলে উল্লেখ করেছেন। এটি সংশোধন করার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন