এদিকে আজ ছিল পার্থ-অর্পিতার ১০ দিনের ইডি হেফাজতে থাকার শেষ দিন। বিকেলে কলকাতার নগর দায়রা আদালতের বিশেষ আদালতে দুজনকে তোলা হলে আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে পার্থর জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন। পাশাপাশি পার্থকে আরও দুই দিন ইডি হেফাজতে রাখার আদেশ দেন। আর অর্পিতা আজ আদালতে কোনো জামিনের আবেদন না করায় তাঁকেও দুই দিনের ইডি হেফাজত রাখার আদেশ দেওয়া হয়। ৫ আগস্ট আবার তাঁদের আদালতে তোলা হবে।

বেশ কিছুদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের স্কুলশিক্ষক নিয়োগে এই রাজ্যের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী, পরে শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ জমা হচ্ছিল ইডির কাছে। ইডিও তদন্ত শুরু করে পার্থর বিরুদ্ধে। ইডির দল হাজির হয় দক্ষিণ কলকাতার নাকতলার পার্থর বাড়িতে। জেরা চলে টানা ১৯ ঘণ্টা। তারপর ২৩ জুলাই পার্থ গ্রেপ্তার হন ইডির হাতে। পরে পার্থর বান্ধবী অর্পিতার বেলঘরিয়া ও টালিগঞ্জ আবাসন থেকে উদ্ধার হয় প্রায় ৫০ কোটি রুপি।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন