আরসিএমপির নরহত্যা তদন্ত দলের সার্জেন্ট ডেভিড লি বলেন, হতাহত ব্যক্তিরা গৃহহীন কি না, তিনি এখনো নিশ্চিত করতে পারছেন না। বন্দুকধারীর সঙ্গে আগে থেকে তাঁদের পরিচয় ছিল কি না, তা নিশ্চিত হতে এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন কর্মকর্তারা।

বন্দুকধারী ও হতাহত ব্যক্তিদের শনাক্ত করা গেছে, তবে পুলিশ তাঁদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি। অবশ্য সতর্কতা জারির সময় বন্দুকধারী শ্বেতাঙ্গ ও টি-শার্ট পরিহিত ছিলেন বলে জানানো হয়েছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে কানাডায় নির্বিচার বন্দুক হামলার ঘটনা অনেক কম। দক্ষিণের এই প্রতিবেশীর তুলনায় কানাডায় কঠোর আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন রয়েছে। অবশ্য লাইসেন্স থাকলে কানাডীয়রা অস্ত্র রাখতে পারেন।

২০২০ সালে কানাডায় সবচেয়ে মারাত্মক বন্দুক হামলার ঘটনাটি ঘটেছিল। নোভা স্কশিয়ার পোর্টাপিকে পুলিশের একটি নকল গাড়ি চালিয়ে এসে এক বন্দুকধারী ১৩ জনকে গুলি এবং আরও ৯ জনকে আগুন দিয়ে হত্যা করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের উভালদে শ্রেণিকক্ষে বন্দুকধারীর হামলায় ১৯টি শিশু ও ২ শিক্ষক নিহত হওয়ার এক সপ্তাহ পর মে মাসে জাতীয়ভাবে হাতবন্দুক নিষিদ্ধ করে একটি আইন প্রস্তাব করে অটোয়া।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন