গত কয়েক দিন সিরিয়ায় কুর্দি ওয়াইপিজি মিলিশিয়াদের ওপর তুরস্কের বিমান ও ড্রোন হামলার পর এই রকেট হামলার ঘটনা ঘটল। তুরস্ক ও ওয়াইপিজির পাল্টাপাল্টি হামলা বাড়তে থাকায় সীমান্তের দুই পাশেই বেসামরিক লোকজন নিহত হয়েছেন।

তুরস্ক বলেছে, গত রোববার সিরিয়া ও ইরাকে বিমান হামলা চালিয়ে ৮৯টি লক্ষ্যবস্তু ধ্বংস করা হয়েছে। গত রোববার ও সোমবার ওয়াইপিজি ও পিকেকের অবস্থান লক্ষ্য করে চালানো এসব অভিযানে ১৮৪ যোদ্ধা নিহত হন।

গত সপ্তাহে ইস্তাম্বুলে চালানো বোমা হামলার জবাবে সপ্তাহান্তে এ অভিযান চালানো হয় বলে জানিয়েছে আঙ্কারা। ওই বোমা হামলায় ছয়জন নিহত হন। হামলার জন্য কুর্দি যোদ্ধাদের দায়ী করেছে তুরস্কের সরকার।

তবে কোনো গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছে কুর্দি সংগঠন পিকেকে ও এসডিএফ।