বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বৈঠকে ইমরান খান বলেন, ‘আমাদের সমাজে যৌন অপরাধ ব্যাপক হারে বাড়ছে। এর মধ্যে রয়েছে ধর্ষণ, শিশুদের যৌন হয়রানি। এর এক শতাংশের খবর পাওয়া যায়।’ ন্যাশনাল রেহমাতুল-লিল-আলামিন অথরিটি এ সংলাপের আয়োজন করেছিল।
ইমরান খান বলেন, ‘যৌন অপরাধের বিরুদ্ধে সমাজের লড়াই করতে হবে। দুর্নীতি ক্ষেত্রেও একই পদক্ষেপ নিতে হবে। সমাজে দুর্নীতিবাজদের অগ্রহণযোগ্য করে তুলতে হবে। কিন্তু হতাশার বিষয় হলো আমাদের নেতারা যখন দীর্ঘদিন ধরে দুর্নীতি করে, তখন এই দুর্নীতি গ্রহণযোগ্য হয়ে যায়।’

এদিক আলোচনা সভায় বিশেষজ্ঞরা ইঙ্গিত দিয়েছেন, মুসলিম দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করতে হবে। আধুনিকায়নের যে নেতিবাচক প্রভাবগুলো রয়েছে, সেগুলোর মোকাবিলা করতে এই দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করতে হবে।

এ আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক সাইয়্যেদ হোসেন নাসর। তিনি বলেন, এই সময় তরুণদের জন্য অনিশ্চিত ও বিপজ্জনক।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন