বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান সোমবার জানায়, শিশুটির বিরুদ্ধে অভিযোগ, গত মাসে সে ইচ্ছাকৃতভাবে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার কার্পেটে মূত্রত্যাগ করেছে।

পাকিস্তানের আইন অনুসারে, ইসলাম ধর্ম অবমাননার সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড। এদিকে শিশুটির পরিবার ও স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকেই পাঞ্জাবের রক্ষণশীল রহিম ইয়ার খান এলাকায় আত্মগোপনে রয়েছে।

অজ্ঞাত অবস্থান থেকে ছেলেটির পরিবারের এক সদস্য জানান, ধর্ম অবমাননার বিষয় সম্পর্কে শিশুটি কিছু জানেই না। তাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। সে এখনো জানেই না কোনটা ভুল আর সঠিক এবং কেন তাকে এক সপ্তাহ ধরে কারাগারে রাখা রয়েছে?

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন