default-image

পাকিস্তানে বিভিন্ন হলে আয়োজিত বিয়ের অনুষ্ঠান ও রেস্তোরাঁই কোভিড-১৯ ছড়ানোর মূল উৎস। দেশটির পরিকল্পনামন্ত্রী আসাদ ওমর আজ কোভিড-১৯ বিষয়ক এক বৈঠকে এ কথা বলেন বলে ডনের খবরে বলা হয়। এ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো স্বাস্থ্য গাইডলাইন ও প্রটোকল মেনে চলায় প্রশংসা করেছেন তিনি।

কোভিড-১৯ বিষয়ে ন্যাশনাল কমান্ড ও অপারেশন সেন্টারের (এনসিওসি) নিয়মিত বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, বিয়ের হল ও রেস্তোরাঁ হলো করোনাভাইরাসের মূল উৎস। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললেই এই সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব।

বৈঠকে উপস্থিত একজন নাম না প্রকাশের শর্তে ডনকে বলেন, আসন্ন কয়েক সপ্তাহ হবে খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লে প্রয়োজনে খাবারের দোকান ও বিয়ের হল বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

গত রোববার দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আসন্ন শীতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আসতে পারে বলে সতর্ক করেছেন।

বিজ্ঞাপন

বৈঠকে বলা হয়, দেশটির লোকজন এখন স্বাস্থ্য প্রটোকল তেমন আর মানছে না। বিশেষ করে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব মেনে না চলা উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আসাদ ওমর বলেন, মাস্ক পরিধানই করোনার বিস্তার নিয়ন্ত্রণে রাখার অন্যতম উপায়।

এনসিওসির প্রকাশিত তথ্যে দেখা গেছে, দেশটিতে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৩৬ জন করোনার সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছে।

করোনা মহামারির সময় এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সামাজিক নিরাপত্তা ভালোভাবে মেনে চলা দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তান একটি। গতকাল সোমবার ইন্টারন্যাশনাল পলিসি সেন্টার ফর ইনক্লুসিভ গ্রোথের (আইপিসি-আইজি) প্রকাশিত এক গবেষণায় এ কথা বলা হয়। অনলাইনে বৈশ্বিক সম্মেলনের মাধ্যমে এ গবেষণা পরিচালিত হয়।

গবেষণাটি চালায় ইউনিসেফ, জাতিসংঘ ও আইপিসি-আইজি। এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো করোনার প্রাদুর্ভাবের সময় কীভাবে সামাজিক নিরাপত্তা রক্ষা করেছে, তার ওপর এই গবেষণা চালায়।

মন্তব্য করুন