বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অভিবাসী দলটিকে যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করার কাজে দলটিরই দুজন সদস্য ও মেক্সিকোর নাগরিক জড়িত ছিলেন কি না, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নিহত অভিবাসীদের মধ্যে গুয়াতেমালার দুজন তরুণ ফুটবল খেলোয়াড়ও আছেন। নিহত অন্য অভিবাসীরাও গুয়াতেমালার নাগরিক বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফরেনসিক পরীক্ষার ফলাফলে দেখা গেছে, প্রথমে তাঁদের গুলি করা হয়, এরপর পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

ওই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে কৌঁসুলিরা বলেছেন, হত্যাকাণ্ডের দিন গুয়াতেমালা ও সালভাদরের কিছু অভিবাসীকে নিয়ে কয়েকটি গাড়ি যুক্তরাষ্ট্র অভিমুখে যাচ্ছিল। গাড়িগুলো ঘিরে ছিলেন বেশ কিছু সশস্ত্র ব্যক্তি।

লাতিন আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন