বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় সোমবার দেশটির সান্তো ডোমিঙ্গো ডি লস কলোরাডোস শহরের বেলাভিস্তা কারাগারে ওই দাঙ্গার ঘটনা ঘটে। রাজধানী কুইতো থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূরে শহরটি অবস্থিত।

কারাগারে লস লোবোস ও আর-৭ নামের বিরোধী দুটি গ্যাংয়ের বন্দীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। ইকুয়েডরের সরকারি কৌঁসুলির কার্যালয়ের ভাষ্যমতে, ‘এখন পর্যন্ত ৪৩ জন বন্দী নিহত হয়েছেন। তবে পরিস্থিতি অনেকটা সামাল দেওয়া গেছে।’

দেশটির পুলিশ প্রধান ফাউস্তো সালিনাস সাংবাদিকদের বলেন, দাঙ্গার ঘটনায় সময় পলাতক কারাগারের ১১২ বন্দীকে আটক করে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। এখনো ১০৮ বন্দীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

এর আগে দাঙ্গায় আহতদের মধ্যে ১৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান ইকুয়েডরের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্যাট্রিসিও কারিলো। তিনি বলেন, তাঁদের অনেকেই গুরুতর আহত। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

ইকুয়েডরে কারাগারে দাঙ্গার ঘটনা নতুন না। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটির বিভিন্ন কারাগারের আলাদা পাঁচটি দাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে। এসব দাঙ্গায় প্রায় ৩৫০ বন্দী নিহত হয়েছেন। সবশেষ গত মাসে দক্ষিণ ইকুয়েডরের এল তুরি কারাগারে এক দাঙ্গায় কমপক্ষে ২০ বন্দী নিহত হন।

লাতিন আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন