default-image

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এডোয়ার্ডো পাজেলোর করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। হাসপাতালে ভর্তির পর তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল শনিবার এ তথ্য জানানো হয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর করোনা শনাক্ত হয় গত ২১ অক্টোবর। তবে গত ৩০ অক্টোবর তিনি পানিস্বল্পতার সমস্যা নিয়ে ব্রাজিলিয়ার একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। আজ রোববার পর্যন্ত তাঁকে হাসপাতালে থাকতে হবে। আজ তাঁর আবার করোনা পরীক্ষা করা হবে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অবস্থা খুব বেশি জটিল নয়। তাঁকে অক্সিজেন দেওয়ার প্রয়োজন পড়েনি।

রয়টার্স জানিয়েছে, করোনা শনাক্ত হওয়ার এক দিন পরেই দেশটির প্রেসিডেন্ট জইর বোলসোনারোর সঙ্গে হোটেলে সাক্ষাৎ করেছিলেন পাজেলো। এক ভিডিওচিত্রে দেখা গেছে, হোটেলে দুজন মাস্ক না পরেই আলোচনা করছেন। গত জুলাই মাসে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। তিনি এখন করোনা থেকে সেরে উঠেছেন।

বিজ্ঞাপন

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দ্রুত সেরে ওঠার পেছনে ক্লোরোকুইন ওষুধটি কাজে লেগেছে। উল্লেখ্য, করোনা প্রতিরোধে ক্লোরোকুইন ওষুধটি বিতর্কিত। করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনকে ‘গেম চেঞ্জার’ ওষুধ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি নিজেও তা সেবন করেছেন বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) এর আগে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ও ক্লোরোকুইন ওষুধের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন বাতিল করেছে।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো বরাবরই করোনাভাইরাসের তীব্রতার বিষয়টিকে খাটো করে দেখেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতোই তিনি ম্যালেরিয়ার ওষুধ ক্লোরোকুইন ও হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের পক্ষে কথা বলেছেন। কোভিড-১৯ চিকিৎসায় এটি কার্যকর কি না, তার যথেষ্ট তথ্য–প্রমাণ পাননি গবেষকেরা।

করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে ব্রাজিলে এক মাসের ব্যবধানে দুজন স্বাস্থ্যমন্ত্রী পদত্যাগ করেন। তাঁরা ক্লোরোকুইন ব্যবহারের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একমত পোষণ করেননি। পাজেলো সেনাবাহিনীর জেনারেল হিসেবে স্বাস্থ্য খাতের কোনো ডিগ্রি ছাড়াই মন্ত্রী হয়েছেন। তিনি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ক্লোরোকুইন ব্যবহারের বিষয়টি বাড়াতে কাজ করছেন।

বিশ্বে করোনা মহামারিতে শীর্ষ আক্রান্তের দিক থেকে ব্রাজিল তৃতীয়। জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, আজ রোববার পর্যন্ত দেশটিতে ৫৫ লাখ ৩৫ হাজার ৬০৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে মারা গেছেন ১ লাখ ৫৯ হাজার ৮৮৪ জন। বোলসোনারোর ২৩ সদস্যের মন্ত্রিসভার অর্ধেকেরই করোনা শনাক্ত হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0