default-image

ব্রাজিলে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে এক দিনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার ব্রাজিলে ৪ হাজার ১৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর এএফপির।

এ পর্যন্ত দেশটিতে প্রায় ৩ লাখ ৩৭ হাজার মানুষের মৃত্যু হলো। মৃত্যুর হারে যুক্তরাষ্ট্রের পরই ব্রাজিলের অবস্থান। ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফোর তথ্যানুসারে, দেশটিতে সংক্রমিত  মানুষের সংখ্যা ১ কোটি ৩১ লাখের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮২ হাজারের বেশি।

করোনা পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে ব্রাজিল সরকার। কোন রোগীকে জরুরি জীবনরক্ষাকারী সেবা দেওয়া হবে এবং কাকে দেওয়া হবে না, এমন পীড়াদায়ক সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছেন চিকিৎসকেরা। রাত পর্যন্ত দাফনকাজে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এসপ্রিতো সান্তো ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মহামারি বিশেষজ্ঞ ইথেল ম্যাচিয়েল বলেন, ‘আমরা এখন ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্যে আছি। রাজ্য বা ফেডারেল সরকার কাউকেই দেখছি না কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নিতে।’

ইথেল ম্যাচিয়েল আরও বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা পুরো জনসংখ্যার মাত্র ১০ শতাংশকে টিকার প্রথম ডোজ দিতে পেরেছি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ২০ দিনের কার্যকর লকডাউন আরোপ করা জরুরি।

ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ব্যর্থতার জন্য দেশটির প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারোকে দায়ী করা হয়। মহামারি নিয়ন্ত্রণে বিশেষজ্ঞদের কোনো পরামর্শ তিনি শুনছেন না বলে সমালোচনা রয়েছে। গত বছর বলসোনারো নিজেও করোনায় সংক্রমিত হয়েছিলেন।

দক্ষিণ আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন