default-image

ব্রাজিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়েছে। বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের পরেই দেশটির অবস্থান। সংক্রমণ রোধে কড়াকড়ি শিথিল ও ধীরগতির টিকাদান কর্মসূচির কারণে সামনের মাসগুলোতে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে সতর্কতা দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ব্রাজিলে গতকাল বৃহস্পতিবার করোনায় ৩ হাজার ১ জন লোকের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়। এর ফলে মহামারির শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ১ হাজার ১৮৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

বিজ্ঞাপন

চলতি বছরে ব্রাজিলে করোনার সংক্রমণ এত ভয়াবহ ছিল যে পুরো দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে পড়েছিল। এমনকি এক মাসের মধ্য এক লাখের মতো মানুষের মৃত্যু ঘটে। সে সময় প্রতিদিন ৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। এপ্রিলের শুরুতে সেটা কিছুটা নেমে আসে। তখন অনেক স্থানীয় সরকার সংক্রমণ রোধে আরোপিত লকডাউন শিথিল করে দেয়।

default-image

তবে সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কড়াকড়ি শিথিল করায় সামনের মাসগুলোতে মৃতের সংখ্যা আরও বেড়ে যাবে। শুধু টিকা দিয়ে সংক্রমণ রোধ করা যাবে না। তাঁদের মতে, প্রতিদিন দুই হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হতে থাকবে।

মহামারিবিদ পেদ্রো হাল্লাল বলেন, গত বছরের মতো একই ভুল করতে যাচ্ছে ব্রাজিল। কোভিড-১৯ নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া এ বিশেষজ্ঞ বলেন, এখন কী করছে ব্রাজিল? ফের কড়াকড়ি শিথিল করে দিল এবং মৃতের সংখ্যা প্রতিদিন দুই হাজারে স্থির করতে যাচ্ছে, যেন শুধু একটা রোগে প্রতিদিন দুই হাজার মানুষ মারা যাওয়া স্বাভাবিক ঘটনা।

default-image

ওয়ার্ল্ডোমিটার ডট ইনফোর পরিসংখ্যান বলছে, দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৪৫ লাখ ৯২ হাজার ৮৮৬ জন। আক্রান্তের সংখ্যায়ও বিশ্বজুড়ে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ব্রাজিল। এপ্রিল মাসে দেশটিকে টপকে যায় ব্রাজিল। আক্রান্তের সংখ্যায় শুরু থেকেই শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিজ্ঞাপন
দক্ষিণ আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন