কলম্বিয়ান সেনাবাহিনী ফ্রাঙ্কোইসের একটি ভিডিও বক্তব্য প্রকাশ করেছে। সেখানে তিনি তাঁর সে দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার কাছে কোনো খাবার ছিল না। নৌকায় শুধু এক বোতল কেচাপ, রসুন গুঁড়া এবং ম্যাগি (স্টক কিউব) ছিল। আমি কিছু পানির সঙ্গে এগুলো মিশিয়ে নিয়েছিলাম।’

ফ্রাঙ্কোইস বলেন, ডিসেম্বরে সেন্ট মার্টিন দ্বীপের নেদারল্যান্ডস অংশের কাছে নৌকার মেরামত কাজ করছিলেন তিনি। হঠাৎই বৈরী আবহাওয়ার কবলে পড়েন। নৌকাটি তখন সাগরে ভেসে যায়।

ফ্রাঙ্কোইস বলেছেন, নৌ পরিচালনাসংক্রান্ত বিষয়ে তাঁর জ্ঞান কম থাকায় তিনি নৌকাটি তীরে ফিরিয়ে নিতে পারেননি। সাগরে পথ হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।

ফ্রাঙ্কোইস বলেন, ‘কোথাও নামার জায়গা ছিল না, কথা বলার কেউ ছিল না। এভাবে ২৪টা দিন কেটেছে। কী করতে হবে, তা বুঝতে পারছিলাম না। আপনাদের সাহায্য কীভাবে পাব, তা জানা ছিল না। কঠিন সময় ছিল এটি। একপর্যায়ে আমি আশা হারিয়ে ফেললাম। পরিবারের কথা মনে পড়ছিল।’

কলম্বিয়ার কর্মকর্তারা বলেছেন, উদ্ধার হওয়ার পর ফ্রাঙ্কোইসকে বন্দর শহর কার্টাজেনাতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসা দেওয়ার পর তাঁকে দেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চালাতে অভিবাসন কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।