অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই কিন্তু প্রথমে ধন্দে পড়ে গিয়েছিলেন। তাঁরা ভেবেছিলেন, কফিনের ভেতরে নিশ্চয়ই কোনো মরদেহ আছে। তবে সবার ভুল ভাঙে কিছুক্ষণ পরই। হঠাৎ বর কফিনের ঢাকনা খুলে উঠে বসেন, আর বেরিয়ে এসে বিয়ের জন্য প্রস্তুত হন।

ভিডিওতে বর বা কনের পরিচয় জানানো হয়নি। উদ্ভট ওই পরিকল্পনার পর তাঁদের প্রতিক্রিয়া কেমন ছিল, তা-ও দেখা যায়নি। তবে ভিডিওটি দেখে যে অনেকে মোটেও খুশি হননি, তা বোঝা যায় তাঁদের মন্তব্য থেকে।

বেশির ভাগ মানুষের ভাষ্য, এমন কর্মকাণ্ড একেবারেই ‘অসম্মানজনক’। একজন লিখেছেন, ‘আমি সেখানে থাকলে বিয়েই ভেঙে দিতাম।’ আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘আমার কাছে এটা একেবারেই অসহ্য। কোনো অনুষ্ঠানে এমন হলে আমি সেখানে থাকবই না।’

কেউ কেউ আবার বরের আগমনের এই ধরনকে মজা হিসেবেই নিয়েছেন। যেমন একজন বলেছেন, ‘বর কি বোঝাতে চাচ্ছেন যে বিয়ে করলে তাঁর জীবন শেষ হয়ে যাবে?’

বিয়ের উৎসবে এমনই উদ্ভট এক কাণ্ড গত মে মাসেই ঘটেছিল। ওই বিয়ের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ভিডিওতে দেখা যায়, বর ও কনে হাত ধরাধরি করে আগুনের ওপর দিয়ে হাঁটছেন। বর-কনের নাম জেব জোসেপ ও আমবির মিশেল। তাঁরা দুজনই টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে কাজ করেন। ভিডিওটি ১ কোটি ৫০ লাখবারের বেশি দেখা হয়েছিল।