এমন অবস্থায় গতকাল টুইটারের সব পর্যায়ের কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন কোম্পানির প্রধান নির্বাহী পরাগ আগারওয়াল। সংশ্লিষ্ট এক সূত্র রয়টার্সকে জানায়, বৈঠকে কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন আগারওয়াল। সে সময় কর্মীদের কাজের প্রতি মনোযোগ অব্যাহত রাখার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন তিনি। বলেন, ‘যা কিছুই ঘটুক না কেন কর্মী হিসেবে আমরা তা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখব।’

বৈঠকে কর্মীদের কাজের প্রশংসাও করেছেন পরাগ আগারওয়াল।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, সূত্র তার নাম প্রকাশে অনিচ্ছা জানিয়েছেন। কারণ, জনসমক্ষে এ নিয়ে কথা বলার অনুমতি তাঁর নেই।

এ সপ্তাহের শুরুতে মাস্ক বলেন, টুইটারের পরিচালনা বোর্ডে যুক্ত হওয়ার পরিকল্পনা থাকলেও তা বাতিল করেছেন তিনি। কারণ, টুইটার বোর্ডে বসলে কোম্পানি কিনে নেওয়ার ক্ষেত্রে বাধার মুখে পড়তে হবে তাঁকে।

টুইটার কিনে নেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে চেয়ারম্যান ব্রেট টেলরকে লেখা এক চিঠিতে মাস্ক বলেন, ‘টুইটারে বিনিয়োগ করার পর থেকে বুঝতে পারছি বর্তমান অবস্থায় প্রতিষ্ঠানটি উন্নতি করবে না বা সামাজিক প্রয়োজন মেটাবে না। টুইটারকে একটি প্রাইভেট কোম্পানি হিসেবে রূপান্তরিত করতে হবে।’

মাস্ক বলেন, ‘আমার প্রস্তাবটি সেরা ও চূড়ান্ত। এ প্রস্তাব যদি গৃহীত না হয়, তবে শেয়ারহোল্ডার হিসেবে আমার অবস্থান বিবেচনা করতে হবে।’

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন