‘ট্রানজিশন টিম’ ওয়েবসাইটটিতে এখন পর্যন্ত শুধু ল্যান্ডিং পেজ দেখা যাচ্ছে
‘ট্রানজিশন টিম’ ওয়েবসাইটটিতে এখন পর্যন্ত শুধু ল্যান্ডিং পেজ দেখা যাচ্ছেছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন ও তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিসের পক্ষ থেকে ‘ট্রানজিশন টিম’ ওয়েবসাইট খোলা হয়েছে।

চূড়ান্ত ফলাফলে নির্বাচিত হলে প্রথম দিন থেকেই কাজে নেমে পড়ার জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে যখন কোনো প্রেসিডেন্ট প্রার্থী নির্বাচনে জয়ী হন, তখন তাঁর ‘ট্রানজিশন টিম’ গঠনের প্রয়োজন হয়। জানুয়ারিতে ক্ষমতা গ্রহণের প্রস্তুতিতে সহায়তার লক্ষ্যে এই টিম গঠন করা হয়।

বিজ্ঞাপন
default-image

৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কোনো প্রার্থীর জয় এখনো ঘোষিত হয়নি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন উভয়ই নিজ নিজ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

৪ নভেম্বর বিকেল থেকে নিজেদের জয়ের ব্যাপারে অনেকটা আত্মবিশ্বাসী অবস্থানে আছেন বাইডেন-হ্যারিস। মূলত এ কারণেই তাঁদের ‘ট্রানজিশন টিম’ ওয়েবসাইট উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

ওয়েবসাইটটিতে এখন পর্যন্ত শুধু ল্যান্ডিং পেজ দেখা যাচ্ছে। যেখানে বলা আছে, জনগণই নির্ধারণ করবেন, কে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বেশ কিছু অঙ্গরাজ্য ও কাউন্টিতে ভোট এখনো গণনা করা হচ্ছে। দেশ মহামারি, অর্থনৈতিক–সংকট, জলবায়ু–সংকট, জাতিগত অবিচারের মতো সমস্যায় জর্জরিত।

এসব কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, বাইডেন-হ্যারিসের ট্রানজিশন টিম প্রথম দিনই কাজ শুরু করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে।

নেভাদা, অ্যারিজোনা, পেনসিলভানিয়া, নর্থ ক্যারোলাইনা, জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের পূর্ণ ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত কোনো প্রার্থীই নিজেকে নিশ্চিত বিজয়ী ঘোষণা করতে পারছেন না।

জো বাইডেন এক বক্তৃতায় নিজের বিজয় ঘোষণা না করলেও তিনি যে সুনিশ্চিত বিজয়ের পথে, তা দেশবাসীকে জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি দেশকে ঐক্যবদ্ধ করার কথা বলেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষ থেকে একটি অঙ্গরাজ্যের ভোট আবার গণনার আবেদন জানানো হয়েছে। দুটি অঙ্গরাজ্যের অবশিষ্ট ভোট গণনা বন্ধ করার জন্য আদালতে আবেদন জানিয়েছে ট্রাম্পের প্রচার শিবির।

ওয়াশিংটন পোস্ট ও নিউইয়র্ক টাইমস বলছে, অঙ্গরাজ্যভিত্তিক জয় অনুযায়ী এখন পর্যন্ত বাইডেন ২৫৩ ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট পাচ্ছেন। ট্রাম্প পাচ্ছেন ২১৪ ভোট। মোট ৫৩৮টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোটের মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে প্রয়োজন ২৭০টি। সেদিক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পথে অনেকটা এগিয়ে গেছেন বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বড় বড় নগরীতে হাজার হাজার মানুষ বুধবার সন্ধ্যায় সড়কপথে নেমে আসেন। তাঁরা শান্তিপূর্ণ পদযাত্রা করে সব ভোট গণনার জন্য স্লোগান দেন। যুক্তরাষ্ট্রের কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সর্বত্রই শান্তিপূর্ণ সমাবেশ হচ্ছে বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0