default-image

মার্কিন নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু নিজের প্রত্যাশামতো ফলাফল আসেনি নিজেদের রাজ্যগুলোতেই। ২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্প যেসব রাজ্যে জয়ী হয়েছিলেন তার মধ্যেই হানা দিয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। বাইডেনের এগিয়ে যাওয়ার বিষয়টি ক্ষুব্ধ করে তুলেছে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে।

ভোট গণণা শেষ না হতেই নির্বাচনের রাতেই হোয়াইট হাইসের ইস্ট রুমে নিজেকে জয়ী ঘোষণা করেছেন। সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন। দিনভর ভুলভাল টুইট করেছেন। এর বাইরে নিজের এগিয়ে থাকা রাজ্যগুলোতে বাইডেন ব্যবধান কমাতে শুরু করলে ক্ষোভে রিপাবলিকান সিনেটরদের কল করতে শুরু করেন।

বিজ্ঞাপন

সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্বাচনের পর ভোট গণনার দিনটি ট্রাম্প ক্রুদ্ধভাবে রিপাবলিকান গভর্নরদের ফোন করে কাটিয়েছেন। এদিন নিজের আগে থেকে ঠিক করে রাখা আইনি কৌশলের ওপরেও বিরক্তি ও সন্দেহ প্রকাশ করতে শুরু করেন।

ফক্স নিউজে গত রাতেই অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে বাইডেনকে জয়ী ঘোষণা দেওয়ার পরপরই খেপে যান ট্রাম্প। তিনি দ্রুত ঘনিষ্ঠদের ওই রাজ্যে নির্বাচন নিয়ে মামলা করতে নির্দেশ দেন। ট্রাম্পের সহযোগীরা গতকাল বুধবার সারা দিন আইনি কৌশল ঠিক করতে সময় কাটান। ওই সময়ে অ্যারিজোনায় ভোট গণনা চলছিল। সিএনএন এখনো অবশ্য অ্যারিজোনায় বিজয়ী বিষয়ে কোনো পূর্বাভাস দেয়নি।

সারা বিশ্বের শত কোটি চোখ এখন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফলের দিকে। ওয়াশিংটন পোস্ট ও নিউইয়র্ক টাইমসের খবর বলছে, অঙ্গরাজ্যভিত্তিক জয় অনুযায়ী এখন পর্যন্ত জো বাইডেন ২৫৩ ভোট ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট পাচ্ছেন। আর ট্রাম্প পাচ্ছেন ২১৪ ভোট। মোট ৫৩৮টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোটের মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে প্রয়োজন ২৭০টি।

পরাজয়ের আভাস পেয়ে ট্রাম্প শিবিরে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে সুইং স্টেট উইসকনসিনের ভোট পুনরায় গণনার আবেদন করবে বলে জানিয়েছে তারা। আর রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, মিশিগান, পেনসিলভানিয়া ও জর্জিয়াতে ভোট গণনা বন্ধের দাবিতে মামলা করেছে রিপাবলিকান পার্টির নির্বাচনী প্রচারণা শিবির। ট্রাম্পের এসব পদক্ষেপ অবশ্য অনুমিতই ছিল। কারণ শুরু থেকেই তিনি আইনি লড়াইয়ের হুমকি দিয়ে আসছিলেন।

সিএনএন তাদের সূত্রের বরাতে বলছে, গতকাল ট্রাম্প সারা দিন ক্ষুব্ধ হয়ে রিপাবলিকান গভর্নরদের ফোন করেছেন। এর মধ্যে অ্যারিজোনার গভর্নর ডগ ডসি, জর্জিয়ার ব্রায়ান কেম্প, ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডেসান্টিসের নাম রয়েছে।

কাল সারা দিন ক্ষুব্ধ হয়ে একাধিক টুইটও করেছেন ট্রাম্প। কিন্তু তিনি সারা দিন যা বলেছেন, সবকিছুই ভুল ছিল বলে দাবি করেছে সিএনএন। টুইটারে ট্রাম্প যেসব টুইট করেছেন, তার মধ্যে ছয়টিতে সতর্কতামূলক লেবেল জুড়ে দিয়েছিল টুইটার কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0