বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন পুলিশ বিভাগ অপরাধ কমাতে একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ব্যবহারকারীর তথ্য বিশ্লেষণে কাজ শুরু করেছে।

ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি ও ব্যবহার স্পষ্টভাবে নিষিদ্ধ। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে একটি নিরাপদ পরিবেশ তৈরি করা, যাতে মানুষ আস্থা রাখতে পারে এবং জবাবদিহি বজায় থাকে।

ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও নাগরিক অধিকার নিয়ে কাজ করা আইনজীবী রয় অস্টিন ফেসবুকের নীতিমালার রূপরেখা উল্লেখ করে একটি চিঠি লিখেছেন। তাতে তিনি বলেছেন, লস অ্যাঞ্জেলেস পুলিশ ডিপার্টমেন্ট কর্মকর্তাদের ফেসবুকের ভুয়া অ্যাকাউন্ট খোলার পরামর্শ দিচ্ছে। এ ছাড়া নথিপত্রে দেখা গেছে, পুলিশ ডিপার্টমেন্টের নীতিমালায় অনলাইন অনুসন্ধানমূলক কার্যকলাপের জন্য কর্মকর্তাদের ভুয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যদিও এ ধরনের নীতিমালা করার বৈধতা এলএপিডির থাকতে পারে, তবে পুলিশ কর্মকর্তাদের অবশ্যই ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় ফেসবুকের নীতিমালা মানতে হবে।

ফেসবুকের ওই কর্মকর্তা পুলিশ সদস্যদের নকল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার, অন্যদের ছদ্মবেশে অ্যাকাউন্ট খোলা এবং নজরদারির উদ্দেশ্যে তথ্য সংগ্রহের কাজ বন্ধ করার আহ্বান জানান।

অলাভজনক সংস্থা ব্রেনান সেন্টার অব জাস্টিসের নথি অনুযায়ী, ২০১৯ সালে এলএপিডি ভয়েজার ল্যাবস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নজরদারির সফটওয়্যার ব্যবহার শুরু করে। এ সফটওয়্যার ব্যবহার করে সন্দেহভাজন ব্যক্তির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে থাকা নেটওয়ার্ক, তাঁর বন্ধুদের অ্যাকাউন্টসহ নানা তথ্য সংগ্রহ করার সুযোগ থাকে। ভয়েজার ল্যাবসের দাবি, তাদের সফটওয়্যার বিশাল ডেটা বিশ্লেষণ করে অপরাধ দমনসহ ব্যবহারকারীর উদ্দেশ্য বা ধারণা সম্পর্কে তথ্য দিতে পারে।

এলএপিডি জানায়, ওই সফটওয়্যার ব্যবহার করে তারা অনলাইনে বিভিন্ন গ্যাংয়ের তথ্য জানতে পারে। এ ছাড়া ডাকাতি ঠেকাতে এ সফটওয়্যার তাদের কাজে লাগে।
তবে ফেসবুক বলছে, তাদের ব্যবহারকারীদের ওপর গুপ্তচরবৃত্তি করা ও বৈধ ব্যবহারকারীদের ছদ্মবেশ ধারণ করা ফেসবুকের উদ্দেশ্যের বিরুদ্ধে যায়।

তবে অস্ট্রেলীয় নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ রবার্ট পটার মনে করেন, মানবাধিকারকর্মী বা সাংবাদিকেরা অনলাইনে গোপনীয়তা রক্ষা করতে বা ইন্টারনেট সেন্সরশিপ আছে, এমন দেশগুলোর ব্যবহারকারীদের জন্য ছদ্মবেশী নাম ন্যায্য হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন