default-image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তাঁর দল বলছে, মার্কিনদের আরও বেশি করোনা পরীক্ষা করা হবে। তাঁদের মাস্ক পরতে বলা হবে।

বিবিসির আজ সোমবারের খবরে জানা যায়, বাইডেন অর্থনীতি, জাতিগত বৈষম্য ও জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুকেও যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছেন।

গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যগুলোয় ভোট গণনা এখনো চলছে। পেনসিলভানিয়ায় জয়ের মধ্য দিয়ে স্থানীয় সময় গত শনিবার বাইডেনের জয় নিশ্চিত করেছে মার্কিন গণমাধ্যম ও নেটওয়ার্কগুলো। জানুয়ারিতে ক্ষমতা গ্রহণ করবেন বাইডেন। ডেমোক্র্যাটরা তাঁদের পরিকল্পনা অনুসারে সেদিকে অগ্রসর হচ্ছেন। আর এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধের বিষয়টি।

দ্য বাইডেন টিম বলছে, প্রত্যেক মার্কিনের নিয়মিত ও বিনা মূল্যে পরীক্ষা নিশ্চিত করা হবে। বিভিন্ন কমিউনিটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সহায়ক নির্দেশিকা দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

বাইডেন মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে নিয়ম জারি করতে চান। বাইডেন বলেছেন, মাস্ক পরলে হাজারো প্রাণ বাঁচবে। বাইডেন ঘরের বাইরে জনসমাগমস্থলে গেলে প্রত্যেক মার্কিনকে মাস্ক পরতে আহ্বান জানানোর পরিকল্পনা করেছেন। তিনি চান অঙ্গরাজ্যের গভর্নররা এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এটি বাধ্যতামূলক করবে।

জনসমাগমস্থলে জো বাইডেনকে নিয়মিত মাস্ক পরতে দেখা গেছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মাস্ক পরতেন না বললেই চলে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুসারে বাংলাদেশ সময় আজ সোমবার সকাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৯৯ লাখ ৬১ হাজার ৩২৪ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গেছেন ২ লাখ ৩৭ হাজার ৫৬৬ জন। বিবিসির খবরে জানা যায়, স্থানীয় সময় শনিবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে ১ লাখ ২৫ হাজারের বেশি। তিন দিন ধরে সংক্রমণের এমন হার বজায় আছে।

করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের পরিকল্পনাও রয়েছে জো বাইডেনের। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে যুক্তরাষ্ট্রে কয়েক লাখ মানুষ বেকার হয়ে পড়েছেন। উৎপাদন বৃদ্ধি, অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ, হাতের নাগালে শিশুদের যত্নের ব্যবস্থা, বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে সম্পদের বৈষম্য কমিয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে বাইডেনের।

বাইডেন কৃষ্ণাঙ্গ ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের আবাসন, চিকিৎসা ও বেতনের ক্ষেত্রে বৈষম্য কমাতে চান। এ জন্য তিনি নীতিনির্ধারণী পরিকল্পনাও করেছেন।
পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যুর ঘটনা কমাতে বাইডেন জাতীয় পুলিশ তদারকি কমিশন গঠনের পরিকল্পনা করেছেন।

নির্বাচনে বাইডেনের জয় নিশ্চিত হওয়ার পর থেকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জনসমক্ষে কোনো বক্তব্য দেননি। তবে তিনি টুইটে ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন। কোনো প্রমাণ ছাড়াই ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলে জানিয়েছেন।
নতুন প্রেসিডেন্ট আনুষ্ঠানিকভাবে ২০ জানুয়ারি শপথ নেবেন। সে সময় পর্যন্ত তিনি মন্ত্রিসভা গঠন ও পরিকল্পনার কাজে ব্যয় করবেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0