তবে সিআইএ প্রধান বলেন, এর সপক্ষে কোনো তথ্য-প্রমাণ নেই। কৌতুক করে তিনি বলেন, পুতিনকে ‘অনেক চনমনে’ দেখাচ্ছে।

এমন সময় উইলিয়াম বার্নস এমন মন্তব্য করলেন, যখন ইউক্রেনকে দূরপাল্লার আরও অস্ত্র সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেছেন, ইউক্রেনে রুশ সামরিক বাহিনীর নজর কেবল পূর্বাঞ্চলেই সীমাবদ্ধ নয়। ইউক্রেনকে এ ধরনের অস্ত্র সরবরাহ করায় মস্কোর কৌশলে পরিবর্তন আনার বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

কলোরাডোয় আসপেন সিকিউরিটি ফোরামে সিআইএ প্রধান বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট পুতিনের স্বাস্থ্যের বিষয়ে অনেক গুঞ্জন রয়েছে। এখন পর্যন্ত আমরা বলতে পারি, তিনি পুরোপুরিভাবে সুস্থ।’ হেসে জবাব দিয়ে তিনি আরও বলেন, এটা আনুষ্ঠানিক কোনো গোয়েন্দা তথ্য পর্যালোচনা নয়।

উইলিয়াম বার্নস মস্কোয় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। সিআইএ প্রধান বলেন, দুই দশকেরও বেশি সময় তিনি পুতিনকে দেখে আসছেন এবং দাপ্তরিক প্রয়োজনে তাঁর সঙ্গে কাজ করেছেন।

তিনি বলেন, নিয়ন্ত্রণ, ভীতিপ্রদর্শন এবং সমুচিত জবাব দেওয়ায় বড় বেশি বিশ্বাসী পুতিন। তাঁর উপদেষ্টার সংখ্যা সংকুচিত হতে থাকায় গত দশকে এই প্রবণতা আরও বেড়েছে।

পুতিনের বিষয়ে সিআইএ প্রধান আরও বলেন, ‘রুশ নেতা হিসেবে তিনি বিশ্বাস করেন, রাশিয়াকে বিশ্ব শক্তি (গ্রেট পাওয়ার) হিসেবে পুনঃপ্রতিষ্ঠাই তাঁর নিয়তি। তিনি মনে করেন, এটি করার মূল চাবিকাঠি হলো রাশিয়ার আশপাশে আবার প্রভাব বলয় তৈরি করা। আর ইউক্রেনকে নিয়ন্ত্রণ করা ছাড়া তিনি কাজটি করতে পারবেন না।’

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন