টুইট বার্তায় কার্যালয়ে যাওয়ার কথা উল্লেখ করেছেন টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক। আর বায়োতে লিখেছেন টুইটারের প্রধান ‘চিফ টুইট’। গতকাল বুধবার টুইটার কার্যালয়ে গিয়ে ইলন মাস্ক সংস্থার নির্বাহীদের সঙ্গে সভা করেছেন কি না, তা জানা যায়নি।

গত মে মাসে টুইটার কেনার চুক্তি থেকে সরে আসার চেষ্টা করেছিলেন ইলন মাস্ক। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, টুইটারের বট এবং স্প্যাম অ্যাকাউন্টের সংখ্যা কত, তা নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি সঠিক তথ্য দিচ্ছে না। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদ শুরু হয় এবং তারা একে অপরের বিরুদ্ধে মামলা করে। চলতি মাসের শুরুর দিকে মাস্ক আবার সিদ্ধান্ত বদল করেন। বলেন, মূল শর্তগুলো মেনেই তিনি চুক্তিটি এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

এর আগে ইলন মাস্ক বলেছেন, টুইটারে নানা পরিবর্তন আনতে হবে। তিনি টুইটারের প্রায় ৭৫ শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছেন। টুইটারের মালিকানা কিনতে কোম্পানিটির সঙ্গে ইলন মাস্কের চুক্তিতে যাঁরা বিনিয়োগ করতে চান, তাঁদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন তিনি। সামনের মাসগুলোয় টুইটারে কর্মী ছাঁটাই হতে পারে।

টুইটারের মালিকানা ইলন মাস্ক কিংবা বর্তমান কর্তৃপক্ষ যার হাতেই থাকুক না কেন, প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মী ছাঁটাই হবে। ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, টুইটারের বর্তমান ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ আগামী বছরের শেষ নাগাদ কোম্পানির কর্মীদের বেতন বাবদ বরাদ্দ থেকে ৮০ কোটি ডলার কাটছাঁটের পরিকল্পনা করেছে। এর মানে হলো, প্রতিষ্ঠানটির প্রায় এক–চতুর্থাংশ কর্মশক্তিকে বিদায় নিতে হবে।