টুইটারে পৃথক আরেক পোস্টে গত জুলাই মাস থেকে টুইটারে ব্যবহার বৃদ্ধির গ্রাফ তুলে ধরেছেন। তাতে তিনি বিশ্বব্যাপী অর্থ আয় করা সম্ভব এমন দৈনিক টুইটার ব্যবহারকারীর ও শুধু যুক্তরাষ্ট্রের টুইটার ব্যবহারকারীর গ্রাফ তুলে ধরেন।

টুইটারে ব্যাপক হারে ব্যবহারকারী বেড়ে যাওয়ার এ দাবি করলেও এমআইটি টেকনোলজি রিভিউ নামের একটি সাইটের প্রতিবেদনে ভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়। প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটটিতে বলা হয়, ইলন মাস্ক টুইটার কিনে নেওয়ার পর থেকে টুইটার থেকে ১০ লাখ ব্যবহারকারী সরে গেছেন।

ভুয়া তথ্য ঠেকানো ও বট ট্র্যাকার ওয়েবসাইট বট সেনটিনেলের প্রতিষ্ঠাতা ক্রিস্টোফার বাউজি বলেন, আমরা দেখেছি ব্যবহারকারীর পক্ষ থেকে টুইটারে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার ও টুইটারের পক্ষ থেকে ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার হার বেড়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তারা ৩১ লাখ অ্যাকাউন্ট বিশ্লেষণ করে দেখা হয়েছে। এর মধ্যে ৮ লাখ ৭৭ হাজার অ্যাকাউন্ট বন্ধ এবং ৪ লাখ ৯৭ হাজার অ্যাকাউন্ট বাতিল করা হয়েছে। গত ২৭ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটেছে। অ্যাকাউন্ট বন্ধ হওয়ার এ ঘটনা সাধারণ পরিস্থিতির চেয়ে দ্বিগুণ। অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে অনেক তারকাও রয়েছেন। এর মধ্যে অন্যতম গিগি হাদিদ। তবে ইলন মাস্কের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তিনি প্যারোডি করার লক্ষ্য তৈরি অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করে দেবেন।

টুইটার কেনার পর থেকে ইলন মাস্ক নানা পরিবর্তন আনছেন। এর মধ্যে রয়েছে টুইটারে ভেরিফায়েড থাকতে মাসে ৮ মার্কিন ডলার করে নেওয়ার মতো সিদ্ধান্তও। এর বাইরে তিনি টুইটারে কর্মী সংখ্যা অর্ধেকে নামিয়ে এনেছেন। টুইটার প্ল্যাটফর্মে সার্চ উন্নত করা ছাড়াও কনটেন্টে অর্থ আয়ের সুযোগ দেওয়ার কথাও ভাবছেন তিনি।