স্থানীয় পুলিশের মুখপাত্র পামেলা ক্যাস্ত্রো বলেন, ‘ক্লাব কিউ নামে পরিচিত নৈশক্লাবটিতে গোলাগুলি চলছে বলে আমরা ফোনে খবর পাই। খবর শুনে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। হামলায় জড়িত সন্দেহভাজন একজনকে শনাক্ত করেছেন তাঁরা। তিনি বলেন, ‘হামলায় ৫ জন নিহত ও ১৮ জন আহত হয়েছেন।’

হামলার পরপর এক ফেসবুক পোস্টে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্লাব কিউ। তারা বলেছে, ‘এটা আমাদের সম্প্রদায়ের ওপর একটি কাণ্ডজ্ঞানহীন হামলা। আমাদের গ্রাহকেরা ঐক্যবদ্ধভাবে দ্রুত সাড়া দেওয়ায় বন্দুকধারীকে ঠেকানো গেছে।’