টেসলার প্রধান নির্বাহীর দাবি, টুইটারে ভুয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ২০ শতাংশ বা তার বেশি। কিন্তু টুইটার কর্তৃপক্ষ এ দাবি মানতে নারাজ। তাই টুইটারের কাছে প্রমাণ চাইছেন তিনি।

গত শনিবার টুইট করে তিনি বলেন, ‘টুইটার কর্তৃপক্ষের দাবি যদি মার্কিন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে মিথ্যা প্রমাণিত হয়, তবে তিনি চুক্তি করবেন না।

টুইটারে এক ব্যবহারকারী প্রশ্ন করেছিলেন, টুইটারে ভুয়া অ্যাকাউন্ট থাকার বিষয়টি মার্কিন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন খতিয়ে দেখছে কি না? এর জবাবে ইলন মাস্ক বলেন, ভালো প্রশ্ন। কেন তারা খতিয়ে দেখছে না?

এ বিষয়ে অবশ্য টুইটারের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। এর আগে মাস্ক দাবি করেন, তাঁর সঙ্গে প্রতারণা করে টুইটার বিক্রির চেষ্টা করা হচ্ছিল। অবশ্য মাস্কের এ অভিযোগ গত বৃহস্পতিবার প্রত্যাখ্যান করেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, মাস্ক যা বলেছেন, তা অকল্পনীয় এবং বাস্তবতার পরিপন্থী।

গত ১২ জুলাই টুইটার কেনার প্রস্তাব ফিরিয়ে নেওয়ার পর টুইটার কর্তৃপক্ষ ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে মামলা করে। টুইটার কর্তৃপক্ষ দাবি করে, ভুয়া অ্যাকাউন্ট থাকার দাবি করে মাস্ক বিভ্রান্তি ছড়িয়েছেন। তিনি ৫৪ দশমিক ২০ মার্কিন ডলার মূল্যের শেয়ারে টুইটার কেনার চুক্তি করতে বাধ্য। এরপর ২৯ জুলাই টুইটারের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করেন মাস্ক।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন