ক্যালিফোর্নিয়ার ফায়ার সার্ভিস বিভাগ বলছে, ২৪ ঘণ্টা পরও আগুন বিন্দুমাত্র নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আগুনের আচরণ বিস্ফোরণধর্মী হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা চ্যালেঞ্জের মধ্যে আছেন বলে উল্লেখ করেছেন তাঁরা।

দাবানলে এখন পর্যন্ত ১০টি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে। তিন হাজারের বেশি মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে এ সময়ে যতগুলো দাবানল হচ্ছে তার মধ্যে ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানলটি সবচেয়ে বড়। ১১ হাজার ৯০০ একর জায়গাজুড়ে এ দাবানল চলছে।

মারিপোসা কাউন্টিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর গাভিন নিউসোম বলেন, উষ্ণ, শুষ্ক আবহাওয়া ও খরা অবস্থার কারণে আগুন ছড়িয়ে পড়ছে।

গতকাল শনিবার মারিপোসাতে তাপমাত্রা ছিল ৯৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট (৩৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস)। আগামী কয়েক দিন সেখানকার তাপমাত্রা এমন অবস্থায় থাকার আভাস দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যাঞ্চল ও উত্তর–পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায়ও চরম গরম চলছে। ওয়াশিংটন ডিসি ও ডালাসে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১০০.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট) তাপমাত্রার আভাস দেওয়া হয়েছে। সে তুলনায় নিউইয়র্কের তাপমাত্রা কম।জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে উষ্ণ ও শুষ্ক আবহাওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। আর তাতে দাবানলের ঝুঁকি বাড়ে। শিল্পযুগ শুরু হওয়ার পর থেকে বিশ্ব প্রায় ১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস উষ্ণ হয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, বিভিন্ন দেশের সরকার যদি কার্বন নিঃসরণ কমাতে পদক্ষেপ না নেয়, তবে তাপমাত্রা বাড়তে থাকবে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন