যুক্তরাষ্ট্রে গতকাল সোমবার এ অভিযান চালানো হয়। ওই সময় ট্রাম্প নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প টাওয়ারে’ অবস্থান করছিলেন। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনা আমাদের জাতির জন্য কালো দিন’।

সাবেক প্রেসিডেন্টের ছেলে এরিক ট্রাম্প বলেন, ট্রাম্পের ‘মার-এ-লাগো’ বাসভবনে এফবিআইয়ের তল্লাশিপরোয়ানা বাস্তবায়নের বিষয়টি ন্যাশনাল আর্কাইভসে নথিপত্র ব্যবস্থাপনা তদন্তের সঙ্গে সম্পর্কিত।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি সংস্থা ন্যাশনাল আর্কাইভস প্রেসিডেন্টের দাপ্তরিক নথিপত্র সংরক্ষণ করে থাকে। ট্রাম্পের দাপ্তরিক কাগজপত্র ব্যবস্থাপনার বিষয়টি তদন্ত করতে গত ফেব্রুয়ারিতে বিচার বিভাগের প্রতি আবেদন জানায় সংস্থাটি।

ন্যাশনাল আর্কাইভস জানায়, তারা ‘মার-এ-লাগো’ থেকে ১৫টি বাক্স পুনরুদ্ধার করেছে। এসব বাক্সের কয়েকটিতে স্পর্শকাতর অতি গোপনীয় নথিপত্র ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টদের সব চিঠি, কাজের নথি ও ই–মেইল ন্যাশনাল আর্কাইভসে পাঠানোর বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে কর্মকর্তারা বলছেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবৈধভাবে অনেক নথি ছিঁড়ে ফেলেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন