বিজ্ঞাপন

সুইজারল্যান্ডে বিশ্বকাপ আর্চারির ফাইনালে বাংলাদেশের রোমান সানা ও দিয়া সিদ্দিকীর হৃদয় ভেঙে গতকাল রোববার সোনা জিতে নেন নেদারল্যান্ডসের অভিজ্ঞ দুই তিরন্দাজ গ্যাব্রিয়েলা শুলুসার ও সেফ ফন ডেন বার্গ। রিকার্ভের মিশ্র ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ মুখোমুখি হয়েছিল নেদারল্যান্ডসের। ফাইনালে বাংলাদেশকে ৫-১ সেট পয়েন্টে হারিয়ে সোনা জেতে নেদারল্যান্ডস।

default-image

রোমানের বাবা গফুর সানা বলেন, ‘করোনার কারণে বেশ কয়েক মাস বাড়িতে বসে ছিল রোমান। এ কারণে ঠিকমতো প্র্যাকটিস করতে পারেনি। তাই চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। তবে আগামীতে রোমান আরও ভালো করবে। একদিন সে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করবে।’

রোমান সানাকে পরিবারের সদস্যরা ডাকেন সুজন নামে। দেশের সেরা আর্চারের এ পর্যন্ত আটটি আন্তর্জাতিক সোনা জয় পরিবারের দুঃখ ঘুচিয়েছে অনেকটা। শুরুটা ২০১৯ সালে হল্যান্ডে বিশ্ব আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপে রিকার্ভ ইভেন্টে ব্যক্তিগত ব্রোঞ্জ জয়ের মধ্য দিয়ে। ২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিকে খেলার কথা ছিল তাঁর। সর্বশেষ ২০১৯ সালে ফিলিপাইনে এশিয়ান র‌্যাঙ্কিং আর্চারিতে রিকার্ভ ইভেন্টের ফাইনালে চীনের লি শি ঝেনঝিকে ৭-৩ ব্যবধানে হারিয়ে সোনা জয় দেশের ক্রীড়াঙ্গনে আলোচনায় নিয়ে আসে রোমান সানাকে।

রূপসা উপজেলার বাসিন্দা আবদুল গফুর সানা প্রথম আলোকে বলেন, বাংলাদেশে আর্চারি খেলাটা তেমন কেউ বুঝতেন না। কিন্তু রোমান সানার ব্যক্তিগত অর্জনের কারণেই দেশের মানুষের কাছে আর্চার নামটি এখন পরিচিত। বিদেশের কাছে বাংলাদেশের সুনাম অক্ষুণ্ন রেখেছেন রোমান। হয়তো এখন অভিজ্ঞতার কাছে পারেননি, তবে একদিন ঠিকই রোমান সানা আর্চারির বড় মঞ্চে চ্যাম্পিয়ন হবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন