বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল শুক্রবার ‘জেলেপল্লির মারুফা পেলেন মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ, অর্থ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পরিবার’—শিরোনামে প্রথম আলোর অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপরই মারুফার পাশে দাঁড়িয়েছে র‌্যাব-৬। আজ শনিবার র‌্যাব-৬–এর সাতক্ষীরা ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার ইশতিয়াক হোসাইন তালার জোয়ালানলতা গ্রামে মারুফার বাড়িতে গিয়ে তাঁর হাতে ভর্তির যাবতীয় খরচ বাবদ নগদ অর্থ তুলে দেন।

মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়া মারুফা বলেন, ‘আর্থিক অনটনের মধ্যেও নিজের ইচ্ছাশক্তি আর সবার দোয়ায় এ পর্যায়ে পৌঁছাতে পেরেছি। কিন্তু আমার পরিবারের পক্ষে ভর্তির টাকা জোগাড় করা কষ্টকর ছিল। র‌্যাব ভর্তির টাকা দিয়ে সহযোগিতা করায় আমি খুব খুশি।’

মারুফা সাতক্ষীরার তালা উপজেলার জেয়ালা গ্রামের মৎস্যজীবী আজিত বিশ্বাস ও তাসলিমা বেগমের মেয়ে। তিন বোনের মধ্যে সবার বড় মারুফা তালার শহীদ আলী আহম্মদ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে এসএসসি ও তালা মহিলা কলেজে বিজ্ঞান বিভাগ নিয়ে ২০২১ সালে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

মারুফার বাবা আজিত বিশ্বাস গতকাল জানান, তিন মেয়ের মধ্যে বড় মারুফা। মেজ মেয়ে মাদ্রাসায় পড়ে। ছোট মেয়েটা এখনো স্কুলে যায় না। মানুষের কাছ থেকে সহযোগিতা নিয়ে মেয়েকে পড়িয়েছেন। নদীতে মাছ ধরে প্রতিদিন ২০০-২৫০ টাকা আয় করেন। তা দিয়ে কোনোরকমে খেয়ে না খেয়ে সংসার চলে। মেয়েটা ডাক্তারি পড়ার সুযোগ পেয়েছে। পড়ানোর খরচ চালানোর মতো তাঁর সামর্থ্য নেই।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন