সভায় দেশের বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষক নিগ্রহ রোধে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান দীপু মনি। তিনি বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে এক শ্রেণির মানুষ দেশ অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা করছে। এক শ্রেণির স্বার্থান্বেষী মহল দেশকে অস্থিতিশীল করতে সব প্রচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে টার্গেট করছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি কিংবা শিক্ষক নিগ্রহ করা হচ্ছে। এসব ঘটনার প্রতিরোধে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন শিক্ষা কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষার বিষয় নিয়েও অপপ্রচার চলছে। তবে নতুন এই শিক্ষাক্রমের মাধ্যমে ধর্মশিক্ষা আরও প্রসারিত হবে। শিক্ষার্থীরা এর মাধ্যমে শুধু ধর্ম বিষয়টি পড়বেই না, চর্চাও করতে শিখবে। তবে অনেকে বিষয়টি নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

দীপু মনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সব সম্ভাবনা কাজে লাগাতে শিক্ষা মূল হাতিয়ার। এ জন্য শিক্ষার রূপান্তর প্রয়োজন, শিক্ষার নতুন কারিকুলাম চালু করা প্রয়োজন। সারা দেশে ৬২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সিলেটের তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন কারিকুলাম চলছে।

সভায় সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমানসহ শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান ও রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন