মৌন মিছিলটি শহরের এনএস রোড প্রদক্ষিণ করে পাঁচ রাস্তার মোড় দিয়ে মজমপুর রেলগেট এলাকায় শেষ হয়। সেখানে বক্তব্য দেন এডিটরস ফোরাম কুষ্টিয়ার সভাপতি মজিবুল শেখ। তিনি আগামী রোববার বেলা ১১টা থেকে কুষ্টিয়ার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে হাসিবুর হত্যাকাণ্ডে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আমরণ অনশন কর্মসূচিতে সাংবাদিকদের উপস্থিত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

মৌন মিছিলে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান, সাংবাদিক অধিকার ফোরাম কুষ্টিয়ার সভাপতি নুর আলম, সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সভাপতি রাশেদুল ইসলামসহ অন্তত ১০০ গণমাধ্যমকর্মী অংশ নেন।

default-image

৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের সিঙ্গার মোড়ে পত্রিকা কার্যালয়ে ছিলেন হাসিবুর। তখন একটি মুঠোফোন কল পেয়ে কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যান। এর পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন তিনি। তাঁর মুঠোফোনটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন তাঁর স্বজনেরা। এর চার দিন পর ৭ জুলাই দুপুরে কুমারখালী পৌরসভার তেবাড়িয়া এলাকায় গড়াই নদের নির্মাণাধীন গোলাম কিবরিয়া সেতুর নিচ থেকে হাসিবুরের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ৮ জুলাই রাতে হাসিবুরের চাচা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কুমারখালী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

নিহত হাসিবুর কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, স্থানীয় দৈনিক কুষ্টিয়ার খবর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পাশাপাশি ঠিকাদারি করতেন। হাসিবুর কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং এ ব্লক এলাকার মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন