জানতে চাইলে সুভাষ দাশ বলেন, ‘আমি রেলওয়ের ওয়েম্যানের কাজ করি। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে আমরা তিনজন ভিন্ন ভিন্ন সময়ে এখানে দায়িত্ব পালন করছি।’ গেটের দায়িত্ব পালনের নিময়কানুন জানেন কি না, এমন প্রশ্নের কোনো জবাব দেননি তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা প্রদীপ নাথ প্রথম আলোকে বলেন, অপ্রশিক্ষিত লোক দিয়ে গেট রক্ষার কাজ চালাতে গিয়ে আবারও যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। দ্রুত ওই স্থানে প্রশিক্ষিত গেটম্যান দেওয়ার দাবি জানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রেলওয়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিভাগীয় প্রকৌশলী (১) মো. আবদুল হানিফ প্রথম আলোকে বলেন, দুর্ঘটনার পর খৈয়াছড়া ঝরনা সড়কের রেলগেটের নিয়মিত গেটম্যান গ্রেপ্তার হয়েছেন। লোকবল সংকটের কারণে হুট করে ওই গেটে প্রশিক্ষত গেটম্যান দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তাই আপাতত ওয়েম্যান দিয়েই গেট রক্ষার কাজ চালাতে হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন