বিজ্ঞাপন

টানা এক সপ্তাহ দাবদাহের পর রাজধানীতে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় বৃষ্টি নামে। সেই সঙ্গে বজ্রপাত আর কালবৈশাখীও বয়ে গেছে। এক মিনিটের কম সময়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখীর সময় বাতাসের গতি ছিল ঘণ্টায় ৫২ কিলোমিটার। এক ঘণ্টার টানা বৃষ্টি আর বাতাসের কারণে রাতের মধ্যে রাজধানীর তাপমাত্রা এক লাফে তিন ডিগ্রি সেলসিয়াসে কমে যায়।

আগামী কয়েক দিন টানা বৃষ্টি চলবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ। দেশের উপকূলে আঘাত না করলেও ২৭ মে পর্যন্ত রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হবে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আরও ঘনীভূত হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর উত্তাল রয়েছে।

চট্টগ্রাম, মোংলা, পায়রা সমুদ্রবন্দরসমূহ ও কক্সবাজারে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ঘূর্ণিঝড়টি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আগামীকাল বুধবার ভোরের দিকে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় পৌঁছাতে পারে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার। এটি দমকা অথবা ঝোড়ো বাতাস হিসেবে ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

পরিবেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন