বায়ু দূষণ
ফাইল ছবি

বায়ুদূষণে বিশ্বের শহরগুলোর মধ্যে আজ বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ঢাকার অবস্থান প্রথম। বাতাসের মান সূচকে (এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স-একিউআই) আজ এ সময় ঢাকার স্কোর ১৭৯। বাতাসের এ মান অস্বাস্থ্যকর।

গতকাল বুধবার এ সময়েই ঢাকার অবস্থান ছিল ১৯তম। আর বাতাসের মান সূচকে স্কোর ছিল ৮৩। এক দিনের ব্যবধানে ঢাকার বায়ুর মানের এ অবস্থা হলো। গতকাল বাতাসের অপেক্ষাকৃত ভালো মানের কারণ ছিল আগের দিনের সন্ধ্যার পরের বৃষ্টি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ২৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয় রাজধানীতে। আর বৃষ্টি হলেই রাজধানীর বাতাসে ইতিবাচক পরিবর্তন হয়। তবে গতকাল বৃষ্টি হয়নি, বেড়েছে দূষণও।

আজ সকাল পৌনে ৯টার দিকে বিশ্বের ১০০টি শহরের মধ্যে বায়ুদূষণে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে কুয়েতের কুয়েত সিটি। শহরটির স্কোর ১৬৩।

তৃতীয় ও চতুর্থ সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই ও দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গ। শহর দুটির স্কোর যথাক্রমে ১৫৮ ও ১৫৭।

আইকিউএয়ার সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান। তারা দূষিত বাতাসের শহরের তালিকা প্রকাশ করে।

বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা এই সূচকে একটি নির্দিষ্ট শহরের বায়ু কতটুকু নির্মল বা দূষিত, সে সম্পর্কে মানুষকে তথ্য দেয়, সতর্ক করে।

বায়ুর মান সূচকে ‘ভালো’ মানের বায়ুর ক্ষেত্রে স্কোর শূন্য থেকে ৫০। স্কোর ৫১ থেকে ১০০ হলে তাকে ‘মধ্যম’ বা ‘গ্রহণযোগ্য’ মানের বায়ু হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ১০১ থেকে ১৫০ স্কোরকে ‘সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর’ ধরা হয়। স্কোর ১৫১ থেকে ২০০ হলে তাকে ‘অস্বাস্থ্যকর’ বায়ু বলে মনে করা হয়।

স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে তাকে ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বায়ু ধরা হয়। আর ৩০১ থেকে তার ওপরের স্কোরকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ ধরা হয়।

ঢাকায় চলতি বছরের জানুয়ারিতে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক দিন ঝুঁকিপূর্ণ বায়ুর মধ্যে কাটিয়েছে নগরবাসী। জানুয়ারিতে মোট ৯ দিন রাজধানীর বায়ুর মান ঝুঁকিপূর্ণ ছিল, যা গত ৭ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

নভেম্বর, ডিসেম্বর, জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি—বছরের এই চার মাস ঢাকার বায়ু বেশি দূষিত থাকে। এর মধ্যে জানুয়ারিতে বায়ুর মান থাকে সবচেয়ে বেশি খারাপ।