স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ভোরে ৪৬-৪৭ পিলারের মাঝামাঝি ফুলতলি সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে বেলাল ও তাঁর চার সঙ্গী চোরাচালানের গরু মিয়ানমার থেকে আনতে যাচ্ছিলেন। সীমান্তের শূন্যরেখা পার হওয়ার সময় আকস্মিক একটি মাইনের বিস্ফোরণ ঘটে। এতে বেলালের বাঁ পায়ের হাঁটুর কাছাকাছি পর্যন্ত উড়ে যায়। তাঁর সঙ্গীরা তাঁকে উদ্ধার করে কক্সবাজারের একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আবছার বলেন, ফুলতলি সীমান্ত জনমানবশূন্য। গরু ও মাদক চুরি করে নিয়ে আসার জন্য চোরাকারবারিরা সীমান্ত পয়েন্ট ব্যবহার করে। এর আগেও ওই সীমান্তে মাইন বিস্ফোরিত হয়েছিল।