ওই মামলায় ১৪ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট রুল দিয়ে তালহাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন। এ আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করে, যা আজ চেম্বার আদালতে ওঠে। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মুনীর। তালহার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী অনীক আর হক ও রেদওয়ান আহমেদ রানজিব।

পরে এস এম মুনীর প্রথম আলোকে বলেন, তালহাকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনটি ওই দিন আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। জামিন স্থগিত হওয়ায় আসামি কারামুক্তি পাচ্ছেন না।

দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো পদ্মা সেতু ২৫ জুন উদ্বোধন করা হয়। এর পরদিন ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে বায়েজিদকে সেতুর নাট খুলে দর্শকদের উদ্দেশে তুলে ধরতে দেখা যায়। ওই ঘটনায় রাজধানীর শান্তিনগর এলাকা থেকে ২৬ জুন তাঁকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। ওই দিন রাতেই সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক শাহীনুল ইসলাম বাদী হয়ে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করেন। মামলায় বায়েজিদকে আসামি করার পাশাপাশি এ কাজে সহযোগিতা করায় তাঁর বন্ধু কায়সারকেও আসামি করা হয়। ভিডিও প্রকাশের পরপরই কায়সার পালিয়ে কাতারে চলে যান।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন