বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আলেশা মার্টের ওই আবেদন নাকচ করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া চিঠিতে বলা হয়, ‘বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ ধরনের কোনো অর্থ প্রদান করতে পারে না। তাই বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আলেশা মার্টকে সরাসরি ব্যাংকে আবেদন করার পরামর্শ দিয়েছে।’
এ বিষয়ে জানতে আলেশা মার্টের চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম শিকদারের সঙ্গে মুঠোফোনে ও হোয়াটসঅ্যাপের যোগাযোগের চেষ্টা করে তার নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এর আগে ১ ডিসেম্বর নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে আলেশা মার্ট তাদের দাপ্তরিক কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। প্রতিষ্ঠানটি তখন জানায়, তাদের কার্যালয়ে কতিপয় লোক এসে কর্মকর্তাদের গায়ে হাত তোলেন এবং বলপ্রয়োগের চেষ্টা করেন। এ কারণে তারা এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে দেওয়া আলেশা মার্টের আবেদনপত্র উল্লেখ করা হয়, প্রতিষ্ঠানটির কর্মীর সংখ্যা ৫০ হাজার এবং অ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানটি প্রতি মাসে আট লাখ ক্রয়াদেশ পেয়ে থাকে বলেও উল্লেখ করেছিল চিঠিতে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে করা ঋণ আবেদনের বিপরীতে প্রতিষ্ঠানটি তিন হাজার ডেসিমেল জমি বন্ধকসহ প্রয়োজনীয় জামানত দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিল। কিন্তু সেই আবেদন নাকচ করে দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন