মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে আইন মানছে না বিমা কোম্পানিগুলো। তাঁদের নবায়ন-অপসারণেও বিধিমালা লঙ্ঘিত হচ্ছে।
বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) সম্প্রতি প্রজ্ঞাপন জারি করে এ কথা বলেছে। দেশের সব বিমা কোম্পানির উদ্দেশে সতর্কবার্তা দিয়ে প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হয়। এতে বিমা আইন ও প্রবিধানমালা প্রতিপালনের তাগিদ দেওয়া হয়।
বিমা খাতে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার নিয়োগ, নবায়ন ও অপসারণের বিষয়ে অনুমোদন নিতে হয় আইডিআরএর কাছ থেকে। ব্যাংক খাতে বাংলাদেশ ব্যাংক যেমন ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) বিষয়ে একই ধরনের অনুমোদন দিয়ে থাকে।
বিমা কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদ এ ব্যাপারে যথাযথ দায়িত্ব পালন করছে না বলে আইডিআরএর পর্যবেক্ষণে এসেছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি বলেছে, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরপরই তাঁদের কাজ করার সুযোগ দেয় বিমা কোম্পানিগুলোর পর্ষদ। বেতন-ভাতাও দিয়ে যাচ্ছে।
আইডিআরএর অনুমোদন ছাড়া কোনো ব্যক্তির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা পদে যোগদান করা বিমা আইন ২০১০-এর ৮০ ধারা এবং বিমা কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ ও অপসারণ প্রবিধানমালা ২০১২-এর পরিপন্থী।
বলা হয়েছে, আইডিআরএর অনুমোদন ছাড়া কেউ মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতে পারবেন না, বেতন-ভাতাও নিতে পারবেন না। তবে কোনো কোম্পানিতে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার পদ শূন্য থাকলে ওই পদের অব্যবহিত নিম্ন পদের কোনো কর্মকর্তা ভারপ্রাপ্ত মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কোম্পানিতে তিন মাস পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে পারবেন।
আইনানুযায়ী বিমা খাতে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বা এমডি বলে কোনো পদ নেই। কিন্তু বিমা কোম্পানির প্রধান নির্বাহীরা নিজেদের এমডি নামে পরিচয় দিচ্ছেন বা ভিজিটিং কার্ড ছাপাচ্ছেন বলে জানা গেছে।
আইডিআরএর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, অনেকেই এমডি, আবার অনেকে এমডি ও মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা—উভয়টিই ব্যবহার করছেন।
যোগাযোগ করলে আইডিআরএর চেয়ারম্যান বলেন, ‘এমডি হিসেবে আইডিআরএ কাউকে অনুমোদন দেয় না। বিমা আইনে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার কথাই বলা আছে, আর সেটাই অনুমোদন করে আইডিআরএ।’
বিমা কোম্পানির মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিআইএ) সভাপতি শেখ কবির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, আইডিআরএর প্রজ্ঞাপনটি ঠিকই আছে। আইডিআরএর অনুমোদন ছাড়াই কিছু কোম্পানি মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ করেছে এবং যথাসময়ে সেই অনুমোদন করিয়ে নেয়নি।
শেখ কবির অবশ্য এও আশা বলেন, অনুমোদনের জন্য আইডিআরএতে আবেদন করা হলে সংস্থাটি যেন এ ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়। এ ছাড়া বিমা কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তারা এখন থেকে এমডি হিসেবে নিজেদের পরিচয় দেবেন না বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।
আইডিআরএ সূত্র জানায়, জীবন বিমা ও সাধারণ বিমা কোম্পানি মিলিয়ে দেশে ৭৭টি বিমা কোম্পানি রয়েছে। এর মধ্যে অনেকগুলো কোম্পানি চলছে ভারপ্রাপ্ত মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা দিয়ে।

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন