আগামী ১৮ নভেম্বর রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় স্টেজ শো হওয়ার কথা। ইতিমধ্যে ওই অনুষ্ঠানের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। কিন্তু ভ্যাট বিভাগের ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, এই অনুষ্ঠানের অনুমতি নেওয়া হয়নি। ভ্যাট কার্যালয়ে ঘোষণা দেওয়া, ব্যাংক গ্যারান্টি জমা ও অনুমতি গ্রহণের বাধ্যবাধকতা আছে। কিন্তু আয়োজক প্রতিষ্ঠান উইমেন লিডারশিপ করপোরেশন এই অনুমোদন নেয়নি। এ ছাড়া টিকিট বিক্রির ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ হয়।

ঢাকা উত্তর ভ্যাট কমিশনারেটকে দেওয়া এনবিআরের চিঠির শেষাংশে বলা হয়েছে, ভ্যাট আইন লঙ্ঘন করে এ-জাতীয় বাণিজ্যিক অনুষ্ঠানের আয়োজন আয়োজক যাতে করতে না পারে, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এনবিআরের ভ্যাট বিভাগের সদস্য মইনুল খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ভ্যাট আইন না মেনে এ ধরনের বাণিজ্যিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে টিকিট বিক্রিও শুরু হয়েছে। পুরো বিষয়টি আইনানুগ না হওয়ায় আমরা ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছি।’

এর আগে গত সোমবার নোরা ফাতেহির কাছ থেকে আয়কর আদায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করতে জননিরাপত্তা বিভাগ, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিবকে চিঠি দিয়েছে এনবিআর। এ ছাড়া ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালককেও চিঠি দেওয়া হয়েছে। নোরা ফাতেহি সম্মানী বাবদ যত অর্থ পাবেন, তার ওপর ৩০ শতাংশ হারে কর দিতে হবে।  

জানা গেছে, উইমেন লিডারশিপ করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ১৮ নভেম্বর ‘গ্লোবাল অ্যাচিভারস অ্যাওয়ার্ড ২০২৩ উইমেন এমপাওয়ামেন্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি তথ্যচিত্রের শুটিংয়ে অংশগ্রহণের জন্য নোরা ফাতেহিকে বাংলাদেশে আনার জন্য তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এখন নোরা ফাতেহির স্টেজ শো করার খবর পেয়েছেন ভ্যাট গোয়েন্দারা।