বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তিনি প্রথম আলোকে বলেন, পর পর দুই প্রান্তিকে মুনাফা করা আমাদের জন্য খুবই উল্লেখযোগ্য ঘটনা। সাধারণত সুপারমার্কেটের ব্যবসায় মুনাফা দেখা পেতে বেশ সময় লাগে। যাত্রার শুরুতেই আমাদের ৭০টির বেশি আউটলেট ছিল। সেগুলো ব্যবসায় খুব একটা ভালো করছিল না, তাই অনেকগুলো আউটলেট বন্ধ করতে হয়। আমাদের অনেক বিনিয়োগ ছিল। অবচয় খরচসহ আরও অনেক খরচ ছিল, যা পরিচালন খরচের মধ্যেই চলে আসে। এ ছাড়া সুপারশপের ব্যবসায়িক মডেলে দেখা যায়, ব্র্যান্ডের প্রতি গ্রাহকের বিশ্বাস অর্জনে বেশ সময় লাগে।

সাব্বির হাসান নাসির জানান, সুপার মার্কেট ক্যাটাগরিতে ২০১৬ সাল থেকে টানা ৫ বছর টানা বেষ্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে স্বপ্ন। এ ছাড়া গত দুই বছর সমস্ত ক্যাটাগরির মধ্যে প্রথম পাঁচটি ব্র্যান্ডের একটি হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে স্বপ্ন। ব্র্যান্ড লেভেলে বাংলাদেশের গ্রাহকদের কাছে স্বপ্ন এখন একটি গ্রহণযোগ্য নাম।

স্বপ্ন জানিয়েছে, গত জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে স্বপ্নের বিক্রির পরিমাণ ছিল ২৯৯ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১ শতাংশ বেশি। সারা দেশে স্বপ্নের ১৯০ টিরও বেশি আউটলেটে ৪ হাজার ৩০০ এর বেশি কর্মী নিযুক্ত রয়েছে। দিনে প্রায় ৪০ হাজারেরও বেশি গ্রাহকসেবা প্রদান করে স্বপ্ন।

সাব্বির হাসান নাসির বলেন, আমাদের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ও কর্মীদের নিরলস পরিশ্রম ও গ্রাহকের ভালোবাসায় স্বপ্ন এখন একটি জায়গায় এসেছে। আমরা আশাবাদী যে এই অর্থবছরে আমরা পরিচালন পর্যায়ে মুনাফা করব।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন