প্রথম আলো ফাইল ছবি

কোভিডে ক্ষতিগ্রস্ত রপ্তানিমুখী পোশাক ও নিট কারখানার শ্রমিকদের তিন হাজার টাকা করে এককালীন অনুদান দেবে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) ও জার্মান সরকার। বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) ও বাংলাদেশ নিট পোশাক উৎপাদক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিকেএমইএ) সদস্যভুক্ত কারখানার শ্রমিকেরা এ টাকা পাবেন।

এ জন্য একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ। মজুরি ভর্তুকি আকারে এককালীন টাকা দিতে আইএলও ও জার্মান সরকার থেকে প্রায় ২৫ কোটি টাকা অনুদান পাচ্ছে তারা।

যোগাযোগ করলে বিকেএমইএ সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম গতকাল মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘কারখানাগুলো থেকে আবেদন নিয়ে আমরা বাছাইয়ের কাজও শুরু করেছি।’

এদিকে বিজিএমইএ সব সদস্যের উদ্দেশে গত শনিবার চিঠি দিয়ে জানিয়েছে, কারখানার মালিকদের ৩১ আগস্টের মধ্যে বিজিএমইএর ঢাকা ও চট্টগ্রাম কার্যালয়ে ই-মেইলযোগে আবেদন করতে হবে।

চিঠিতে বিজিএমইএ বলেছে, শ্রমিকদের জন্য মজুরি ভর্তুকি নিতে হলে কারখানায় কর্মরত শ্রমিক থাকতে হবে ২০০ থেকে ৫০০ জন। ২০২০ সালে কারখানার তিন ধরনের ক্ষতি হতে হবে-আয় কমতে হবে ১০ শতাংশ, ক্রয়াদেশ (অর্ডার) কমতে হবে ১০ শতাংশ ও মুনাফা কমতে হবে ৩০ শতাংশ।

তবে কোনো কারখানার যদি ৩০ শতাংশ মুনাফা না কমে, তাহলে ২০২০ সালের মার্চ থেকে একই বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ক্রেতার পক্ষ থেকে দেরিতে পণ্যের মূল্য পরিশোধিত হয়েছে, এমন ঘটনা থাকতে হবে।