বৈঠক শেষে গত রাতে বিটিএমএর সভাপতি মোহাম্মদ আলী প্রথম আলোকে বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সুতার দাম নিয়ে কয়েকটি ইতিবাচক সিদ্ধান্ত হয়েছে। সবশেষে একটি তিন পক্ষের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। ভবিষ্যতে তুলার দাম হ্রাস-বৃদ্ধি হলে তিন সংগঠনের নেতারা বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবেন।

অন্যদিকে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান প্রথম আলোকে বলেন, সুতা নিয়ে ১০ আগস্ট অনুষ্ঠিত আগের সভায় দাম না বাড়ানোর পাশাপাশি পিআইয়ের মেয়াদ ৭ দিনের পরিবর্তে ১৫ দিন করা হয়েছে। সেটি আজকের (গত রাত) সভায় বলবৎ রাখা হয়েছে। তার বাইরে আপাতত সুতার দাম ৪ ডলার ২০ সেন্ট রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাতে যারা একটু বেশি দামে সুতা বিক্রি করছিল, তাদের সামান্য কমাতে হবে। আর যাদের সুতার দাম ৪ ডলার ২০ সেন্ট ছিল, তারা একই রকম রাখবে।

সুতার বাড়তি দাম নিয়ে হঠাৎ করে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে পোশাক ও বস্ত্র খাতের মালিকেরা মুখোমুখি অবস্থানে চলে যান। পরে শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যস্থতায় গত ১০ আগস্ট রাতে একটি বৈঠক হয়। এতে বিটিএমএ, বিজিএমইএ, বিকেএমইএ ছাড়াও বাংলাদেশ টেরি টাওয়েল অ্যান্ড লিনেন ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিটিটিএলএমইএ) নেতারা উপস্থিত ছিলেন। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, নতুন করে আপাতত সুতার দাম ১ সেন্টও বাড়বে না। সুতার সর্বোচ্চ দাম নির্ধারণে চার ব্যবসায়িক সংগঠন—বিটিএমএ, বিজিএমইএ, বিকেএমইএ ও বিটিটিএলএমইএ নেতাদের সমন্বয়ে একটি কমিটি হবে।

বৈঠকের তিন দিন পরই কারখানার উৎপাদন ও রপ্তানি কার্যক্রম নিরবচ্ছিন্ন রাখতে বেনাপোলের পাশাপাশি অন্যান্য স্থলবন্দর, বিশেষ করে ভোমরা ও সোনামসজিদ দিয়ে বন্ড সুবিধার আওতায় সুতাসহ অন্যান্য কাঁচামাল আমদানির সুযোগ চেয়ে অর্থ ও বাণিজ্যমন্ত্রী এবং এনবিআর চেয়ারম্যানকে চিঠি দেন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান। এ ছাড়া বেনাপোলসহ অন্যান্য অনুমোদিত স্থলবন্দর দিয়ে সুতা আমদানির ক্ষেত্রে একটি ক্রয়াদেশের পণ্য কয়েক ধাপে আনারও সুযোগ চান তিনি। এর এক দিন পরই একই সুবিধাসহ ৬-২০ কাউন্টের সুতা আমদানির সুযোগ চেয়ে অর্থমন্ত্রী ও বাণিজ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেন বিটিটিএলএমইএ চেয়ারম্যান এম শাহাদাত হোসেন। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার বিটিএমএর সভাপতি এনবিআর চেয়ারম্যানকে পাল্টা চিঠি দেন। তিনি দাবি করেন, স্থলবন্দর দিয়ে সুতা আমদানিতে অশুল্ক বাধা তুলে নিলে দেশীয় বস্ত্র খাত ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

বিটিএমএর নেতারা জানান, গত ডিসেম্বর থেকে চলতি আগস্ট পর্যন্ত নয় মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে তুলার দাম বেড়েছে ৪৭ শতাংশ। তার বিপরীতে দেশের বাজারে সুতার দাম বেড়েছে ৩৭ শতাংশ। গত মার্চ থেকেই সুতার দাম চার ডলারের ওপরে বিক্রি হচ্ছে। গত রাতের বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়ে আজ বিকেলে বিটিএমএ জরুরি সভা করবে।