বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এমন করদাতাদের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবারে নতুন উদ্যোগ নিয়েছে। সেটি হলো, আপনাকে ই-রিটার্ন সিস্টেমে নিবন্ধন নিতে হবে। এরপর সাইন ইন করে শুধু কিছু তথ্য যেমন, টিআইএন নম্বর, বেতন বা বার্ষিক আয়ের তথ্য দিলেই পুরো রিটার্ন বানিয়ে দেবে এনবিআর। তখন আপনি চাইলে অনলাইনেই রিটার্ন দিতে পারবেন। কেউ যদি মনে করেন, কর কার্যালয়ে গিয়ে রিটার্ন জমা দেবেন। তাহলে তিনি প্রিন্ট নিয়ে কর কার্যালয়ে তা জমা দেবেন। কর কর্মকর্তারা কোনো প্রশ্ন করবেন না। ই-রিটার্ন সিস্টেমের ঠিকানা হলো www. etaxnbr. gov. bd।

বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী, দু-একটি ব্যতিক্রম ছাড়া সব টিআইএনধারীর বার্ষিক আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন দেওয়া বাধ্যতামূলক। বর্তমানে দেশে প্রায় ৬৭ লাখ টিআইএনধারী আছেন। কিন্তু প্রতিবছর ২৫-২৬ লাখ করদাতা বার্ষিক আয়কর রিটার্ন জমা দেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে জানা গেছে, এ বছর কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়বে না। গতকাল এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম ও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বৈঠক করেছেন। সেখানে অনানুষ্ঠানিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে এবার ৩০ নভেম্বরের পরে রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়ানো হবে না।
এমনিতেই এখন আইনিভাবে রিটার্ন জমার সময় বাড়ানোর সুযোগ নেই। কিন্তু গতবার করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশেষ ব্যবস্থায় রিটার্ন জমার সময় বাড়ানো হয়েছিল।

আপনার টাকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন