>

default-image

চীনা ভাষায় একটা প্রবাদ আছে। বাংলায় অনুবাদ করলে প্রবাদটির অর্থ দাঁড়ায় এমন: নতুন একটা ভাষা শেখা মানে হলো পৃথিবীটা একটা নতুন জানালা দিয়ে দেখা। সত্যিই তো! পৃথিবীতে অসংখ্য ভাষা আছে, আর আমাদের সামনেও আছে অসংখ্য বন্ধ জানালা। কীভাবে একটা-দুটো জানালা খুলে দেওয়া যায়? জানাচ্ছেন মো. সাইফুল্লাহ

কেন শিখব বিদেশি ভাষা?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের করিডরে দেখা হলো খাদিজা খাতুনের সঙ্গে। রাজশাহী কলেজ থেকে স্নাতক শেষ করেছেন। এখন জাপানি ভাষা শিখছেন। কেন? খাদিজার উত্তর সোজাসাপ্টা। ‘একটা নতুন ভাষা জানা থাকলে অনেক কাজের সুযোগ পাওয়া যায়। যাঁরা বিদেশি ভাষা জানেন, তাঁদের জন্য সরকারের কিছু বৃত্তি আছে। বৃত্তি পেলে বিদেশে উচ্চশিক্ষা নেওয়া সহজ হয়।’ খাদিজার মতো শিক্ষার্থীরা জানেন, আজকাল সিভিতে কেবল নাম-ধাম, শিক্ষাগত যোগ্যতা লিখলেই হয় না। চাকরিদাতারা একটা বাড়তি কিছু খোঁজেন। আপনি কেন অন্য চাকরিপ্রার্থীদের তুলনায় একটু বেশি যোগ্য, অবধারিতভাবে এই প্রশ্নের উত্তর আপনাকে দিতে হবে। অতএব আগে থেকেই প্রস্তুতি রাখা ভালো। যাঁরা উদ্যোক্তা হতে চান, তাঁদের সাফল্যের ক্ষেত্রেও ভাষা একটা বড় ভূমিকা রাখতে পারে। একটা দেশের ভাষা বুঝলে আপনি সে দেশের বাজারটা ভালোভাবে বুঝতে পারবেন, উদ্ভাবনী ভাবনা কাজে লাগাতে পারবেন, আপনার সীমানা হবে আরও বড়।

চীনারা সারা বিশ্বে একটা বড় বাজার দখল করে আছে। সে দেশের ভাষা জানলে বিভিন্ন বড় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ তৈরি হয়। আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের চীনা ভাষা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. আফজাল হোসেন মনে করেন, সামনের দিনগুলোতে এই সুযোগ বাড়বে আরও। তিনি বলছিলেন, ‘ইপিজেড (রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা) থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আমাদের এখানে আসে। ক্লাসে ছেলেমেয়েদের সঙ্গে কথা বলে তারাই লোক বাছাই করে নিয়ে যায়। শুধু দোভাষী হিসেবে তো একজনের নিয়োগ হয় না। ছেলেমেয়েরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা বা প্রশাসন বিভাগে কাজ করে। ফলে উন্নতি করার সুযোগ আছে। আমার যেসব ছাত্রছাত্রী ভাষাটা ঠিকমতো জানে, তাঁদের মধ্যে কেউ বেকার নেই, সেটা নিশ্চিতভাবে বলতে পারি।’ আন্তর্জাতিক ছাত্রছাত্রীদের জন্য চীন প্রচুর বৃত্তি দিচ্ছে, এ তথ্যও জানালেন আফজাল হোসেন। বেশ গর্ব নিয়েই বললেন, ‘চীনের শুধু য়্যূননান ইউনিভার্সিটিতেই আমাদের প্রায় ১৩২ জন শিক্ষার্থী আছে।’

ঢাবির আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের স্প্যানিশ ভাষার শিক্ষক ক্রিস্তিনা রদ্রিগেজ বলছিলেন তাঁর ছাত্রছাত্রীদের কথা। জানা গেল, কিছুদিন আগে স্প্যানিশ ভাষার তিনজন শিক্ষার্থী বৃত্তি নিয়ে স্পেন ঘুরে এসেছেন। এখন প্রায় ৪০০ ছাত্রছাত্রী এই বিভাগে পড়ছেন। ক্রিস্তিনার বক্তব্য, ‘বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ভাষাগুলোর মধ্যে স্প্যানিশ অন্যতম। স্পেন ছাড়া আরও বেশ কয়েকটা দেশে এই ভাষার চাহিদা আছে।’

কোথায় শেখা যায়?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট থেকে শিখতে পারেন আরবি, চীনা, ফরাসি, জার্মান, জাপানি, কোরীয়, ফারসি, রুশ, স্প্যানিশ, তুর্কি ও ইতালীয় ভাষা। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে ফরাসি, জার্মান, জাপানি, চীনা ও আরবি ভাষা শেখানো হয়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাঙ্গুয়েজ সেন্টারে আছে ফরাসি, জার্মান, জাপানিসহ আরও কয়েকটি ভাষা শেখার সুযোগ।

ফরাসি ভাষা শিখতে চাইলে আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ, রুশ ভাষার জন্য রুশ বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি কেন্দ্র এবং জার্মান ভাষা শিখতে গ্যেটে ইনস্টিটিউটে যোগাযোগ করতে পারেন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও ভিন্ন ভিন্ন ভাষা শেখার জন্য বিভিন্ন মেয়াদের কোর্স আছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে ফরাসি, চীনা ও জাপানি ভাষায় স্নাতক করা যায়। এ ছাড়া ভাষার দক্ষতার ওপর নির্ভর করে ১ বছর মেয়াদি চারটি ভিন্ন কোর্স আছে—জুনিয়র, সিনিয়র, ডিপ্লোমা ও উচ্চতর ডিপ্লোমা। ১ বছর মেয়াদি এই কোর্সগুলোর জন্য খরচ হবে ৬ থেকে ৭ হাজার টাকা (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা)। এ ছাড়া ৩ মাসের স্বল্পমেয়াদি কিছু কোর্সও আছে।

আরও জানতে ঢুঁ মারতে পারেন নিচের লিংকগুলোতে।

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ: afdhaka.org/admission.php

গ্যোটে ইনস্টিটিউট: goethe.de/ins/bd/en/spr.html

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, ইনস্টিটিউট অব ল্যাংগুয়েজেস: goo.gl/5fJEBo

ড্যাফোডিল ইনস্টিটিউট অব ল্যাংগুয়েজেস: daffodilvarsity.edu.bd/sub/dil/index.php

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন