বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১. শ্রেণির শৃঙ্খলা বজায় রাখব।

২. শ্রেণিকক্ষ পরিষ্কার–পরিচ্ছন্ন রাখব।

৩. বিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করব।

৪. যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে সবার মতামত গ্রহণ করব।

প্রশ্ন: গণতান্ত্রিক মনোভাব কী? গণতান্ত্রিক মনোভাব কেন প্রয়োজন? বিদ্যালয়ে গণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের চারটি ধাপ উল্লেখ করো।

উত্তর: অধিকাংশের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা এবং সম্মান করাকে গণতান্ত্রিক মনোভাব বলে।

সবার স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশের সুবিধার জন্য গণতান্ত্রিক মনোভাব প্রয়োজন।

বিদ্যালয়ে গণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের চারটি ধাপ হলো—

১. সবার মতামত জানতে চাওয়া।

২. গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া সম্পর্কে সবাইকে সঠিক ধারণা দেওয়া।

৩. সবচেয়ে সুবিধাজনক প্রস্তাবটি গ্রহণ করা।

৪. প্রাপ্ত মতামতগুলো পর্যালোচনা করে সুবিধা ও অসুবিধা যাচাই করা।

প্রশ্ন: গণতন্ত্র কী? গণতন্ত্র প্রয়োজন কেন? তোমার বিদ্যালয়ে গণতন্ত্র চর্চার চারটি উপায় লেখো।

উত্তর: গণতন্ত্র হলো জনগণের শাসন।

সবার স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশের সুবিধার জন্য গণতন্ত্র প্রয়োজন।

গণতন্ত্র চর্চার চারটি উপায় হলো—

১. শ্রেণিকক্ষ সাজানোর ব্যাপারে গণতন্ত্র চর্চা করা যায়।

২. ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের সময় গণতন্ত্র চর্চা করা যায়।

৩. দলনেতা নির্বাচন করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্র চর্চা করা যায়।

৪. শিক্ষাসফরে যাওয়ার ক্ষেত্রে গণতন্ত্র চর্চা করা যায়।

প্রশ্ন: গারোদের আদি ধর্মের নাম কী? বর্তমানে তারা কোন ধর্মের অনুসারী? গারোদের বাসস্থান সম্পর্কে চারটি বাক্য লেখো।

উত্তর: গারোদের আদি ধর্মের নাম সাংসারেক।

বর্তমানে বেশির ভাগ গারো খ্রিষ্টান ধর্মের অনুসারী।

গারোদের বাসস্থান সম্পর্কে চারটি বাক্য হলো—

১. অতীতে গারোরা নদীর তীরে তাদের বাড়িগুলো নির্মাণ করত।

২. এ বাড়িগুলো সাধারণত দুচালাবিশিষ্ট দীর্ঘ আকারের হতো।

৩. এ ধরনের বাড়ির নাম ছিল ‘নকমান্দি’।

৪. বর্তমানে তারা অন্যদের মতোই করোগেটেড টিন ও অন্যান্য উপকরণ দিয়ে বাড়ি তৈরি করেন।

রাবেয়া সুলতানা, শিক্ষক, বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল, ঢাকা

এই বিষয়ের প্রকাশিত পূর্বের কাঠামোবদ্ধ প্রশ্ন | পরবর্তী কাঠামোবদ্ধ প্রশ্ন

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন