বিজ্ঞাপন
default-image

এদিকে আমাজনকেও বিনোদন খাতে মনোযোগী হতে দেখা গেছে সাম্প্রতিক সময়ে। তাদের ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা প্রাইমের সদস্যসংখ্যা এখন ২০ কোটির বেশি। গত বছর তাদের সাড়ে ১৭ কোটি গ্রাহক আমাজনে ভিডিও দেখেছেন বলে বিনিয়োগকারীদের জানিয়েছিলেন জেফ বেজোস। এখন আরও বেশি গ্রাহকের কাছে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে আমাজন। আর সে জন্য এমজিএমের বিকল্প খুব বেশি নেই তাদের হাতে। কারণ, এমজিএম কিনলে অনেক জনপ্রিয় চলচ্চিত্র এবং টিভি অনুষ্ঠানের স্বত্ব পেয়ে যাবে তারা।

এমজিএমের মালিকানাধীন হাজার চারেক চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে ‘জেমস বন্ড’, ‘হবিট’, ‘রকি’, ‘রোবোকপ’ ও ‘পিংক প্যান্থার’ সিরিজ। এর সঙ্গে ‘দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস’, ‘দ্য ম্যাগনিফিসেন্ট সেভেন’ এবং ‘ফোর ওয়েডিংস অ্যান্ড আ ফিউনারেল’-এর মতো দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্রও আছে। আর টিভি অনুষ্ঠানের তালিকায় ১৭ হাজার পর্বের নানা সিরিজ রয়েছে। ‘দ্য ভয়েস’ নামের রিয়েলিটি শোর স্বত্বও তাদের।

আমাজনের জন্য বিনোদন যদিও তুলনামূলক ছোট খাত, তবে দ্রুত বর্ধনশীল। ২০২০ সালে টিভি শো, চলচ্চিত্র এবং সংগীতে ১ হাজার ১০০ কোটি ডলার খরচ করেছে মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন